চুয়াডাঙ্গায় ‘বিজিবির সোর্স’কে ঘুমন্ত অবস্থায় গুলি করে হত্যা
চুয়াডাঙ্গায় ‘বিজিবির সোর্স’কে ঘুমন্ত অবস্থায় গুলি করে হত্যা

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়

চুয়াডাঙ্গায় ‘বিজিবির সোর্স’কে ঘুমন্ত অবস্থায় গুলি করে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

চুয়াডাঙ্গায় দামুড়হুদায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে হযরত আলী (৫৬) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার নাস্তিপুর গ্রামে হামলার শিকার হন তিনি। পরে রাত পৌনে তিনটার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

নিহত হযরত আলী দামুড়হুদা উপজেলার পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়নের নাস্তিপুর গ্রামের পশ্চিমপাড়ার মৃত রহিছ উদ্দিনের ছেলে।

দুর্বৃত্তদের গুলিতে মারা যাওয়া হযরত আলীর ছেলে তৌফিক হোসেন জানান, তার বাবা হযরত আলী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সোর্স হিসেবে কাজ করতেন।  

তার অভিযোগ, সীমান্ত এলাকার চোরাকারবারীরা তার বাবাকে হত্যা করেছে।

তৌফিক বলেন, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে বিকট শব্দে আমার ঘুম ভেঙে যায়। পরে পাশের কক্ষে আমার বাবার গোঙানি আওয়াজ শুনতে পেয়ে সেখানে গিয়ে দেখি বাবার মাথা থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে। পরে বাবাকে দ্রুত উদ্ধার করে চাচাতো ভাইকে সাথে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের নিয়ে আসি। রাত পৌনে ৩টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সোহরাব হোসেন বলেন, রাত ১টার পরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে রক্তাক্ত অবস্থায় এক বৃদ্ধকে তার স্বাজনরা নিয়ে আসে। মাথায় গুলির চিহ্ন পাওয়া গেছে। রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

আরও পড়ুন:


মিয়ানমার: লাশ পুড়িয়ে ফেলার ঘটনায় জাতিসংঘের তদন্তের আহ্বান

লঞ্চে আগুন: সুগন্ধা নদী থেকে আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার

৫৩ ভোটে হার, দুই প্রার্থীর সমর্থকদের তুমুল সংঘর্ষ


দর্শনা থানার ওসি এএইচএম লুৎফুল কবীর গণমাধ্যমকে জানান,  ঘুমন্ত অবস্থায় ঘরের জানালা দিয়ে হয়রত আলীকে গুলি করে দুর্বৃত্তরা। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে এসেছি। তিনি বিজিবি-৬ এর সোর্স ছিলেন। অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

ঘুমন্ত অবস্থায় হয়রত আলীকে গুলি করেছে দুর্বৃত্তরা। পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করে অভিযুক্তদের আটকে অভিযান চালাচ্ছে।

তিনি জানান, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তার স্বজনরা জানায় তিনি বিজিবির সোর্স ছিলেন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি।  

news24bd.tv/ নাজিম