রবিবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২০ | আপডেট ১০ মিনিট আগে

দগ্ধ শরীর নিয়ে হাসপাতালে ২৫ দিনের রোহিঙ্গা শিশু

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক:

দগ্ধ শরীর নিয়ে হাসপাতালে ২৫ দিনের রোহিঙ্গা শিশু

মিয়ানমার সেনার দেওয়া আগুনে পুড়ছে রোহিঙ্গাদের বসতবাড়ি (ফাইল ছবি)

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ হওয়া ২৫ দিনের এক শিশুকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আজ শুক্রবার ভোররাত তিনটা ৪০ মিনিটে উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) গাড়ি করে চমেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

দগ্ধ ওই শিশুটির নাম সাইফুল আরমান। তার শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে গেছে। তাকে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

শিশুটির বাবা সৈয়দ নুরের বরাত দিয়ে জেলা পুলিশের মেডিকেল ১ টিমের সহকারী উপ-পরিদর্শক আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, তাদের বাড়ি আকিয়াব জেলার রাশিদংয়ের জোফরান এলাকায়। মিয়ানমার সেনাবাহিনী তাদের ঘরে আগুন লাগিয়ে দিলে ওই শিশুটি পুড়ে যায়। পরে তারা পালিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে।

এই শিশুর পাশাপাশি আরও দুই রোহিঙ্গাকে একই গাড়িতে করে চমেক হাসপাতালে আনা হয়। তারা দুইজন সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন।

তাদের নাম সেলিম উল্লাহ (৪৫) ও হাফেজ আহমদ (১৬)। এদের মধ্যে সেলিম উল্লাহ মংডু থানার লোডা এলাকার দিল মোহাম্মদের ছেলে। হাফেজ আহমদ একই থানার মেরুল্লার কবির আহমদের ছেলে। পালিয়ে বাংলাদেশে আসার পথে তারা সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হন। পরে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন।

গত ২৪ অগাস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে পুলিশ পোস্ট ও সেনা ক্যাম্পে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার পর থেকে সীমান্তে নতুন করে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের ঢল চলছে।

এর পর থেকে গত তিন সপ্তাহে মোট ১০৬ জন রোহিঙ্গা চট্টগ্রাম মেডিকেলে চিকিৎসা নিতে এসেছেন, যাদের অনেকেই এসেছেন গুলি ও পোড়া ক্ষত নিয়ে।

এদের মধ্যে দুইজন গত ২৬ অগাস্ট ও ৩০ অগাস্ট মারা যান। ২৩ জন সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়ে গেছেন।

মন্তব্য