হাওর সংরক্ষণে ব্যাপক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে সরকার:পরিবেশমন্ত্রী
হাওর সংরক্ষণে ব্যাপক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে সরকার:পরিবেশমন্ত্রী

হাওর সংরক্ষণে ব্যাপক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে সরকার:পরিবেশমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ক্ষতি কমিয়ে এনে হাওরগুলো রক্ষার্থে সরকার বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে। এলক্ষ্যে হাওর এলাকার জনগণকে সংগঠিত করে গ্রাম সংরক্ষণ দল গঠন করে দলগুলোর সদস্যদের মাধ্যমে হাওরের পরিবেশ-প্রতিবেশ-জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পরিবেশ,বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী  শাহাব উদ্দিন।

পরিবেশমন্ত্রী বলেন, হাওর এলাকায় জলজ বন সৃজন করা হয়েছে ও সংরক্ষণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। বিল-খাল পুনঃখননের মাধ্যমে জলাভূমির অভয়াশ্রম প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

প্রবল ঢেউয়ের আঘাত থেকে হাওর এলাকার বসতবাড়ি ও সম্পদ রক্ষার জন্য হাকালুকি হাওরে সাবমার্জিবল বাঁধ নির্মাণ ও বাঁধ বরাবর সবুজবেষ্টনী প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গাছের চারা রোপণ করা হয়েছে।  

বৃহস্পতিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থা আয়োজিত ‘জলবায়ু পরিবর্তন ও আমাদের ভবিষ্যত: তারুণ্যের মুখোমুখি নীতিনির্ধারক’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে পরিবেশমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পরিবেশমন্ত্রী  বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাত প্রশমনে স্থানীয় কৃষকদের সেচ সুবিধায় সৌর শক্তিৎচালিত সেচ পাম্প স্থাপন করা হয়েছে। প্রাকৃতিক সম্পদের উপর নির্ভরশীল জনগোষ্ঠীর বিকল্প আয়মূলক কার্যক্রমের জন্য ক্ষুদ্র মূলধন অনুদান প্রদান করা হয়েছে।

এছাড়া, পরিবারকে বিকল্প আয়মূলক কাজের জন্য প্রকল্প হতে সরাসরি উপকরণ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে এবং তাদের দক্ষতাবৃদ্ধির জন্য বিভিন্নমুখী প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

পরিবেশমন্ত্রী আরও বলেন, সুনামগঞ্জ জেলার টাংগুয়ার হাওর ও মৌলভীবাজার জেলার হাকালুকি হাওরকে “প্রতিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকা”হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে।  

পরিবেশমন্ত্রী   শাহাব উদ্দিন বলেন, শুধুমাত্র উন্নত বিশ্বের দিকে না তাকিয়ে থেকে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকার বিশদ পরিকল্পনা এবং কৌশল প্রণয়নের মাধ্যমে নিজস্ব অর্থায়নে বাংলাদেশে পরিবেশ সংরক্ষণ ও জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। বাংলাদেশে জলবায়ু অভিযোজন ও প্রশমন সংক্রান্ত প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ২০০৯ সাল থেকে ২১ অর্থবছর পর্যন্ত প্রায় ৪৮০ মিলিয়ন ইউএস ডলার বা ৩৮৫২ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রদান করেছে।  

আরও পড়ুন: স্ত্রীকে ছাত্রাবাসে নেন তারেক, ধর্ষণ করেন আটজন

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় এই তহবিলের অর্থে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, সরকারি দপ্তর, সংস্থাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান প্রায় ৮০০ টি প্রকল্প গ্রহণ করেছে।  

মন্ত্রী বলেন সরকার বছরে সাত কোটির অধিক গাছ লাগাচ্ছে। তিনি সবাইকে অধিক পরিমাণে গাছ লাগানোর আহবান জানিয়ে বলেন সকলের অংশগ্রহণের মাধ্যমেই পরিবেশ সংরক্ষণে সফল হবে সরকার।  

পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. খলিকুজ্জামান আহমদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভার বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ আশরাফ উদ্দিন । ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি কাসমির রেজা।

news24bd.tv/আলী