বসুন্ধরার কম্বল পেয়ে খুশি পদ্মাপারের দরিদ্র মানুষ
বসুন্ধরার কম্বল পেয়ে খুশি পদ্মাপারের দরিদ্র মানুষ

রাজশাহী সিটি করপোরেশন চত্বরে বসুন্ধরা গ্রুপের উদ্যোগে শীতার্ত ৫০০ মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়

বসুন্ধরার কম্বল পেয়ে খুশি পদ্মাপারের দরিদ্র মানুষ

অনলাইন ডেস্ক

রাজশাহীতে শীতের তীব্রতা বেড়েছে। সোমবার রাজশাহীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সকাল থেকে ঘন কুয়াশা আর হিমেল হাওয়ায় কষ্ট বেড়েছে খেটে খাওয়া দিনমজুর শীতার্ত মানুষগুলোর।  

রোদ উঠলেও উত্তাপ নেই।

দিনভর বইছে হিমেল হাওয়া। ঠাণ্ডা হাওয়া রাজশাহীতে বাড়িয়ে দিচ্ছে শীতের তীব্রতা। ঘন কুয়াশা ও ঠাণ্ডার দাপটে বিপাকে পড়েছেন পদ্মাপারের দরিদ্র মানুষগুলো। এসব মানুষগুলোর পাশে দাঁড়াতে উপহারের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান।

তার নির্দেশে দরিদ্র এসব মানুষগুলোর হাতে উপহার হিসেবে কম্বল তুলে দিয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপ।  

কালের কণ্ঠের শুভসংঘের আয়োজনে রাজশাহী সিটি করপোরেশন চত্বরে আজ সোমবার ৫০০ হতদরিদ্রের হাতে বসুন্ধরার উপহার তুলে দেওয়া হয়।

কালের কণ্ঠ শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান জানান, বসুন্ধরা গ্রুপ দেশব্যাপী শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ শুরু করেছে। এরই অংশ হিসেবে উত্তরের বিভিন্ন জেলায় এই কম্বল বিতরণ করা হচ্ছে।

‘গত শনিবার রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। আজ রাজশাহী সিটি করপোরেশন চত্বরে ৫০০ মানুষের তুলে দেওয়া হয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপের উপহার কম্বল। সিটি করপোরেশনের এলাকায় বসবাসরত হতদরিদ্র মানুষ হাতে হাতে কম্বল পেয়ে খুবই খুশি হয়েছেন। দেশজুড়ে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ কার্যক্রমটি বাস্তবায়ন করছে কালের কণ্ঠের শুভসংঘ। ’

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প গ্রুপ হচ্ছে বসুন্ধরা। তারা সব সময় আর্তমানবতার সেবায় নিয়োজিত। করোনাকালে খাদ্য সহায়তায় পর এবার শীতে কম্বল নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়ানোয় বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ জানান সিটি মেয়র। এ সময় সমাজের বিত্তবানদের এভাবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র লিটন।

আরও পড়ুন:

বসুন্ধরার কম্বল পেল গোদাগাড়ীর শীতার্ত মানুষ

news24bd.tv/  তৌহিদ