ইউক্রেনের পাশের থাকার অঙ্গীকার করেছেন বাইডেন
ইউক্রেনের পাশের থাকার অঙ্গীকার করেছেন বাইডেন

সংগৃহীত ছবি

ইউক্রেনের পাশের থাকার অঙ্গীকার করেছেন বাইডেন

অনলাইন ডেস্ক

রাশিয়ার আগ্রাসনের জবাব দিতে ইউক্রেনের পাশের থাকার অঙ্গীকার পুণর্ব্যক্ত করেছেন মাকিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। রোববার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে ফোনালাপে এই আশ্বাস দেন তিনি।  সেইসঙ্গে হুশিঁয়ারি দেন কিয়েভে মস্কো হামলা চালালে  নিষেধাজ্ঞাসহ কঠিন জবাব দিবে ওয়াশিংটন। এদিকে, রাশিয়া সতর্ক করেছে, অযোক্তিক কারণে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আসলে মস্কো-ওয়াশিংটনের সম্পর্কের ফাটল আরো বাড়বে।

পূর্ব ইউরোপে রুশ সীমান্ত ঘেঁষা দেশ ইউক্রেন নিয়ে সম্প্রতি সংঘাতে জড়িয়েছে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র। সংকট এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে আশঙ্কা করা হচ্ছে যেকোনো সময় ইউক্রেন দখল করে নিতে পারে রাশিয়া।  এরই জেরে দেশটিকে রুশ আগ্রাসন থেকে রক্ষায় সরব যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলো।

এরই অংশ হিসেবে রোববার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে কথা বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এমন তথ্য নিশ্চিত করে হোয়াইট হাউস। ফোনালাপে বাইডেন আশ্বস্ত করেন, ইউক্রেনে হামলা চালালে এর চড়া মূল্য গুনতে হবে রাশিয়াকে। আসতে পারে কঠিন নিষেধাজ্ঞা।

আরও পড়ুন:

সৌদি আরবে অর্থপাচার মামলায় অভিযুক্ত ৬ জনকে ৩১ বছরের কারাদণ্ড

দক্ষিণ আফ্রিকার পার্লামেন্ট ভবনে আগুনের ঘটনায় একজন গ্রেপ্তার 

তবে যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমাদের এমন আশঙ্কা আবারো উড়িয়ে দিয়েছে রাশিয়া। মস্কো বলছে, ন্যাটোর সম্প্রসারণের  বিরুদ্ধে সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। ইউক্রেন যেন প্রতিবেশী রাশিয়ার জন্য হুমকি না হয় সেটাই মস্কোর মূল লক্ষ্য। ইউক্রেন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ভয়ে পিছু হটার সুযোগ নেই বলেও জানায় ক্রেমলিন। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি ধামকি মস্কো-ওয়াশিংটনের সম্পর্কের অবনতি ঘটাচ্ছে বলে মনে করে পুতিন প্রশাসন।

সম্প্রতি ইউক্রেনের বিভিন্ন সীমান্তে এক লাখের বেশি সেনা মোতায়েন করেছে পুতিন প্রশাসন। এ ঘটনায় শংকা এবং সন্দেহ বাড়ে কিয়েভের। অভিযোগ করে, ইউক্রেনে হামলা করতে পারে পুতিন প্রশাসন। যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলোরও আশংকা  সেনা মোতায়েনের মধ্য দিয়ে ইউক্রেনে হামলার পরিকল্পনা করছে মস্কো।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত