আশরাফুল ও নান্নু ইস্যুতে যা বলছে বিসিবি
আশরাফুল ও নান্নু ইস্যুতে যা বলছে বিসিবি

ফাইল ছবি

আশরাফুল ও নান্নু ইস্যুতে যা বলছে বিসিবি

অনলাইন ডেস্ক

জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুলকে প্রকাশ্যে দেশদ্রোহী ও ফিক্সার বলেছেন জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু।  ক্রিকেট বোর্ডে কর্মরত এই কর্তার মেজাজ হারিয়ে দেওয়া এমন মন্তব্যে রীতিমতো ক্ষুব্ধ হন আশরাফুল। নান্নুর এহেন আচরণ ভালোভাবে নেয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

সোমবার এ ব্যাপারে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস গণমাধ্যমের প্রশ্নের মুখে মুখ খুলেন।

 

তিনি বলেন, ‘আশরাফুল যেহেতু বর্তমান খেলোয়াড় আর সাবেক একজন অধিনায়ক, আমি মনে করি সরাসরি এভাবে আক্রমণ করা ঠিক হয়নি। কাউকেই এভাবে আক্রমণ করা ঠিক নয়। আপনি একটা পদে আছেন বোর্ডে, ওই জায়গা থেকে এমন মন্তব্য না করাই ভালো ছিল। যেহেতু নির্বাচক কমিটি ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের অধীনে, আমি এটা নিয়ে তাদের সঙ্গে আলাপ করেছি।

সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জাতীয় দলের নির্বাচকমণ্ডলীকে উদ্দেশ করে আশরাফুল বলেন, ‘একই ব্যক্তি একটি কাজ ১১ বছর ধরে করতে থাকলে আপনি একটা জায়গায় আটকে থাকবেন। নির্বাচক প্যানেল এমন হওয়া উচিত, যারাই হবেন তারা তিন-চার বছরের জন্য দায়িত্ব পাবেন, একটা বিশ্বকাপ থেকে আরেকটা বিশ্বকাপ পর্যন্ত। এভাবে হলে আপনি ভিন্ন কিছু পাবেন, ভিন্ন কিছু ভাবনায় আসবে। ’

পরে ওই চ্যানেলেই গিয়ে মিনহাজুল আবেদনি আশরাফুলকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাচক কত বছর ধরে কাজ করেছেন, সে ধারণা আশরাফুলের নেই। অস্ট্রেলিয়া কি ক্রিকেটে পিছিয়ে গেছে? আমাদের সকলের জানা উচিত, প্রায় ৯ থেকে ১২ বছর ধরে কাজ করেছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাচক। সেখানে ও বলছে বিশ্বকাপ থেকে বিশ্বকাপ! কোন বিশ্বকাপ? বাংলাদেশ কি শুধু ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেলবে, শুধু টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবে, শুধু টেস্ট ক্রিকেট খেলবে? তাহলে কি ওয়ানডের জন্য একটা, টেস্টের জন্য একটা, টি-টোয়েন্টির জন্য একটা নির্বাচক কমিটি লাগবে? যে সমস্ত ক্রিকেটার দেশদ্রোহী হয়ে, ম্যাচ ফিক্সিং করে নিষিদ্ধ হয়, তাদের থেকে তো ভালো কোনো পরামর্শ আশা করা যায় না। ’

যে দেশের মধ্যস্থতায় যুদ্ধবিরতি

বাংলাদেশে চন্দ্রগ্রহণ

নান্নুর এই বক্তব্যে তোলপাড় শুরু হয়। আশরাফুলও কষ্ট পেয়েছেন বলে ফেসবুক লাইভে জানান।

এদিকে, ফেসবুক লাইভে আশরাফুলের অভিযোগ ছিল, তিনি নান্নুর বিরাগভাজন হওয়ার কারণেই এবারের বিসিএলে দল পাননি।  

news24bd.tv/আলী