ঐতিহ্য আর ইতিহাসকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে চলছে আজকের ছাত্রলীগ

ঐতিহ্য আর ইতিহাসকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে চলছে আজকের ছাত্রলীগ

শাহ্ আলী জয়

৭৪ বছর পূর্ণ করলো বাংলাদেশেরে ঐতিহ্যবাহী ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। দীর্ঘ এই সময়ে সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে এই সংগঠনটি ছিল সামনের সারিতে। মহান মুক্তিযুদ্ধে এই সংগঠনের নেতাকর্মীদের দেশমাতৃকার জন্য জীবন উৎসর্গ করেছেন অকাতরে। বাংলাদেশের প্রাচীন রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের চেয়েও পুরোনো এ ছাত্র সংগঠনটিকে নিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেছিলেন- ছাত্রলীগের ইতিহাস, বাঙালীর ইতিহাস।

তবে গত এক দশকে উৎশৃঙ্খল কিছু নেতাকর্মীর কিছু কর্মকাণ্ডে বিতর্কিতও হয়েছে ছাত্রলীগের নাম।

বাংলার মুক্তিসনদ ছয় দফা। ৬৬ সালে বঙ্গবন্ধু এই উত্থাপিত এই ছয় দফা কিভাবে বাঙালীকে মুক্তির পথ দেখাবে জনগণের মাঝে তা ছড়িয়ে দেয় দেশ জুড়ে ছড়িয়ে থাকা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। মাতৃ ভাষার মর্যাদা রক্ষার আন্দোলন কিংবা উনসত্তরের উত্তাল গণ অভ্যুত্থান- সংগঠনটির নেতাকর্মীরা রাজপথে রক্ত ঝড়িয়েছে, জীবন দিয়েছে। একাত্তরের মুক্তি যুদ্ধে শহীদ হয়েছেন অগনিত ছাত্রলীগ কমী। স্বাধীন বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায়ও এ সংগঠনের নাম লেখা আছে স্বর্ণাক্ষরে।  

ছাত্র আন্দোলনের ৭৪ বছরের ঐতিহ্য আর ইতিহাসকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে চলেছে আজকের ছাত্রলীগ।

আরও পড়ুন: ছাত্রলীগের ৭৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

তবে ইতিহাসের স্বাক্ষী হওয়া এই সংগঠন বিতর্কিত হয়েছে নানা ইস্যুতে। বিশেষ করে গত এক দশকে সংগঠনের বেশ কিছু নেতা কর্মীর কারণে সমালোচনা হয়েছে সংগঠনটির। আদর্শচ্যুত এবং অনুপ্রবেশকারীদের সংগঠনে যুক্ত হওয়ার প্রবণতার কথাও উঠে এসেছে গণমাধ্যমে।

ছত্রলীগের সাবেক নেতারা মনে করেন ছাত্র অধিকার নিয়ে সোচ্চার হওয়ার পাশাপাশি সংগঠনের হারানো ইমেজ উদ্ধার করা ছাত্রলীগের সামনে এখন বড় চ্যালেঞ্জ।

news24bd.tv রিমু