পরকীয়ার শীর্ষে যেসব পেশার মানুষ
পরকীয়ার শীর্ষে যেসব পেশার মানুষ

প্রতীকী ছবি

পরকীয়ার শীর্ষে যেসব পেশার মানুষ

অনলাইন ডেস্ক

পরকীয়ার সম্পর্ক একটি বিষাক্ত সম্পর্ক। একটি সুন্দর, হাসিখুশি সুখের সংসার নিমিষেই গুঁড়িয়ে দেয়ার ক্ষমতা রাখে এই পরকীয়ার সম্পর্ক। কিন্তু এরপরও সারাবিশ্বে পরকীয়া মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। যার কারণে বিয়ে বিচ্ছেদের হারও বাড়ছে।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এ ধরনের সম্পর্ক পারিবারিক জীবনে অশান্তি ডেকে আনে। যা বিচ্ছেদ পর্যন্ত গড়ায়। এমনকি এই পরকীয়ার কারণে হত্যা-ধর্ষণের মত ঘটনাও ঘটছে বিভিন্ন দেশে দেশে।

এতকিছুর পরেও সাম্প্রতিক এক গবেষণা বলছে, আজকাল ১০ পেশার মানুষ সবচেয়ে বেশি পরকীয়া করে। সেগুলোর মধ্যে সবার ওপরে আছে চিকিৎসকরা। তারপরে আছে শিক্ষাক্ষেত্র, এরপর উদ্যোক্তা ও অর্থনীতিবিদরা। সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া।

এইম তথ্যই জানিয়েছে একটি সমীক্ষা। একটি অনলাইন ডেটিং মাধ্যম এই সমীক্ষা চালায়। জীবিকার সঙ্গে পরকীয়ার প্রত্যক্ষ সম্পর্ক না থাকলেও কোন পেশার মানুষ সবচেয়ে বেশি পরকীয়াতে লিপ্ত হন তা জানতেই এই সমীক্ষা চালানো হয়।

সেই সমীক্ষার তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যাচ্ছে, ১২টি পেশার মানুষের মধ্যে পরকীয়ার প্রবণতা সর্বাধিক।

অ্যাশলে ম্যাডিসন নামক খ্যাতনামা ডেটিং ওয়েবসাইটের সাম্প্রতিক সমীক্ষা বলছে, ১২টি পেশার মানুষের মধ্যে পরকীয়ার প্রবণতা সর্বাধিক। আর এই পেশার মানুষদের মধ্যে পরকীয়ার প্রবণতায় শীর্ষে রয়েছেন চিকিৎসকরা। ডেটিং ওয়েবসাইটটি ১০০০ জন বিবাহিত ব্যক্তিদের উপর এই সমীক্ষা চালায়।

সমীক্ষায় দেখা গেছে, পরকীয়ায় জড়িত নারীদের মধ্যে ২৩ শতাংশই ছিলেন চিকিৎসক ও নার্স।  

কি কারণে তারা পরকীয়াতে লিপ্ত সে উওরে তারা জানায়, দীর্ঘক্ষণ কাজ করার ফলে মানসিক চাপ কমানোর জন্যই পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। অন্যদিকে পরকীয়ায় জড়িত এমন পুরুষদের মধ্যে ৫ শতাংশই ছিলেন চিকিৎসক।

তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন শিক্ষকরা। এ পেশার মানুষ সর্বাধিক পরকীয়ায় আগ্রহ দেখান। পরকীয়ায় জড়িত নারীদের ১২ শতাংশ ও পুরুষদের ৪ শতাংশই অধ্যাপক, প্রভাষক কিংবা শিক্ষক বলে মত গবেষকদের।

উদ্যোক্তা ও অর্থনীতিবিদরা আছেন তালিকার তৃতীয় স্থানে। পরকীয়ায় আগ্রহী ৯ শতাংশ নারী ও ৮ শতাংশ পুরুষ এই ধরনের পেশায় যুক্ত ছিলেন বলে দেখা গেছে সমীক্ষায়।

এরপর তালিকায় যথাক্রমে আছেন- খুচরা বিক্রেতা, সমাজকর্মী, সাংবাদিক, আইটি কর্মী, উকিল, বিনোদন জগতের মানুষ, কৃষিকাজ ও রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা। আইটি বিভাগে কর্মরত পুরুষরা ৫ শতাংশ ও ২৩ শতাংশ নারী পরকীয়ায় জড়িত।  

যদিও এই সমীক্ষাকে কখনওই সামাজিক সত্যের সামগ্রিক প্রতিফলন হিসেবে ধরে নেয়া  যাবে না।

news24bd.tv/আলী

;