বাড়িতে একা পেয়ে সন্তানকে নৃশংসভাবে খুন করলো বাবা! 
বাড়িতে একা পেয়ে সন্তানকে নৃশংসভাবে খুন করলো বাবা! 

ফাইল ছবি

বাড়িতে একা পেয়ে সন্তানকে নৃশংসভাবে খুন করলো বাবা! 

অনলাইন ডেস্ক

বাবার অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে সাত বছরের ছেলে থাকতো মা এবং দাদা-দাদির সঙ্গে। কিন্তু আদালতের আদেশে সেই সন্তানকে একদিনের জন্য কাছে পায় বাবা। কিন্তু সন্তানকে কাছে পেয়ে ৩১ ডিসেম্বর রাতে হত্যা করেন সেই বাবা। খুনের পর সন্তানের মরদেহ ঘরের একটি আলমারির মধ্যে রেখে দেয় সে।

এরপর সে স্ত্রীকে হত্যা করার চেষ্টা চালায়। গত ৩১ ডিসেম্বর ইতালিতে এই নৃশংস খুনের ঘটনা ঘটে। খবর দ্যা মিরর।

জানা গেছে,  সন্তান হত্যার দায়ে অভিযুক্ত ডাভিডে পাইতোনির (৪০)সঙ্গে তার স্ত্রীর বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা চলছে।  অতীতেও তার বিরুদ্ধে পারিবারিক সহিংসতার অভিযোগ রয়েছে। নিজের এক সহকর্মীকে ছুরি দিয়ে আঘাত করার চেষ্টার অভিযোগে ওই ব্যক্তিকে গৃহবন্দিও থাকতে হয়েছে অনেকদিন।

অতীতে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে এমন সব মারাত্মক অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও পাইতোনি নামে ওই ব্যক্তির আবেদনে সাড়া দেয় দেশটির বিচারক। আদালত নির্দেশ দেয়, ৩১ ডিসেম্বরের সন্ধ্যবেলা বাবার সঙ্গেই কাটাতে হবে সাত বছরের ছেলেকে। ইতালির ভারেসে প্রদেশে পাইতোনির বাড়িতেই তার ছেলেকে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

সাত বছরের ছেলেটি অবশ্য বাবার কাছে যেতে  রাজি ছিলো না। সে বাবার কাছে না যেতে অনেক অনুরোধও করে। কিন্তু আদালতের নির্দেশে বাধ্য হয়েই ওই শিশুটিকে বাবার কাছে পাঠাতে বাধ্য হন  তার মা ও দাদা-দাদীরা। আর তার পরিণতি হয় মর্মান্তিক হত্যার মধ্য দিয়ে৷ নিজের বাড়িতে একা পেয়ে ছেলেকে নৃশংস ভাবে খুন করে ওই ব্যক্তি৷

দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, শিশুটির গলায় ছুরির গভীর ক্ষত চিহ্নের আঘাত রয়েছে। অভিযুক্তের বাবার একটি বাড়িতে থাকা আলমারির মধ্যে থেকে পরে শিশুটির দেহ উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন : ঠোঁট ফাটছে? জেনে নিন  মুক্তির উপায়

আরও পড়ুন : শীতে গায়ে সরিষা তেল মাখলে কী হয়?

পুলিশের অনুমান, স্ত্রীর উপরে প্রতিশোধ নিতেই ছেলেকে খুন করেছে অভিযুক্ত। এমন কী, শিশুটিকে খুনের পরেও তাকে ফিরিয়ে দেওয়ার কথা বলে স্ত্রীকে নিজের কাছে ডাকে পাইতোনি। তার পরে স্ত্রীকেও খুন করার জন্য ছুরি দিয়ে হামলা চালায় সে৷ গুরুতর আঘাত লাগলেও প্রাণে বেঁচে যান ওই মহিলা। ঘটনার পরই পালিয়ে যায় অভিযুক্ত। ২ জানুয়ারি মিলিটারি অফিসাররা তাকে গ্রেফতার করে৷

নিজের স্ত্রীকে পাঠানো ভয়েস মেসেজে পাইতোনি বলে, আমি তোমাকে শাস্তি দিতে চেয়েছি কারণ তুমি আমার জীবন শেষ করে দিয়েছো আর আমার ছেলেকে আমার থেকে কেড়ে নিয়েছো।
news24bd.tv/আলী

;