দীর্ঘ কয়েক মাসের চেষ্টায় সন্তানকে ফিরে পেল বাবা-মা
দীর্ঘ কয়েক মাসের চেষ্টায় সন্তানকে ফিরে পেল বাবা-মা

সংগৃহীত ছবি

দীর্ঘ কয়েক মাসের চেষ্টায় সন্তানকে ফিরে পেল বাবা-মা

অনলাইন ডেস্ক

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল তালেবানের নিয়ন্ত্রণে চলে যাওয়ার পর সেখানকার বিমানবন্দরে বিশৃঙ্খলা পরিস্থিতির মধ্যে হারিয়ে যায় মাত্র দুই মাস বয়সীএক শিশু। দীর্ঘ সাত সপ্তাহের অপেক্ষা, আলোচনা ও আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তার পরিবার ফিরে পায় তাকে। রয়টার্সের প্রতিবেদন প্রকাশের পর শিশুটির সন্ধান মেলে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

অবশেষে অপেক্ষার প্রহর শেষ হলো সন্তান হারানো আফগান বাবা-মায়ের।

দীর্ঘ কয়েক মাসের চেষ্টায় সন্তানকে ফিরে পেল বাবা-মা। এ গল্প কাবুল বিমানবন্দরে হারিয়ে যাওয়া সেই শিশু সোহেইল আহমাদির।  
  
সোহেইলকে খুঁজে পান ট্যাক্সিচালক হামিদ সাফি। তিনি জানান, বিমানবন্দরে পড়ে থেকে একা একা কাঁদতে দেখেন শিশুটিকে। তার বাবা-মাকে অনেক খুঁজেও বের করতে না পেরে সোহেইলকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।  

হামিদ সাফি বলেন, শিশুটিকে বাড়িতে নিয়ে যাই এবং নাম রাখেন মোহাম্মাদ আবেদ। ফেসবুক পেজে নিজের নাতি-নাতনিদের সঙ্গে সুহেইলের ছবি শেয়ার করেন।  

বার্তা সংস্থা রয়টার্স নভেম্বরে এ ঘটনা নিয়ে একটি প্রতিবেদনসহ শিশুটির ছবি প্রকাশ করা হয়। পরে শিশুটি কাবুলে আছে বলে খোঁজ পাওয়া যায়। খোঁজ পাওয়ার পর দীর্ঘ সাত সপ্তাহের আলোচনা ও আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তালেবান পুলিশের হস্তক্ষেপে ২৯ বছর বয়সী হামিদ সাফি শিশুটিকে কাবুলে থাকা তার আত্মীয়দের কাছে ফিরিয়ে দেন। শিশুটিকে ফেরত পেয়ে আনন্দে আত্মহারা তার পরিবারের সদস্যরা।  

শিশুর দাদা, মোহাম্মদ কাসেম রেজাভী, বলেছেন, আজ আমাদের জন্য একটি ঐতিহাসিক দিন। আমি মিডিয়ার কাছে কৃতজ্ঞ, তারা শিশুটির হস্তান্তরে চাপ দেয়ার সাহায্য করায়, আমার নাতিকে পেয়েছি।
  
গত বছর ১৯ অগাস্ট কাবুল বিমানবন্দরে আফগানিস্তান ছাড়তে জড়ো হওয়া যাত্রীদের ব্যাপক ভিড়ের মধ্যে শিশু সোহেইলকে বেড়ার ওপর দিয়ে এক মার্কিন সেনার হাতে তুলে দেয় তার বাবা-মা। এরপর তারা আর তাদের শিশু সন্তানকে খুঁজে পাননি।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত