‘সবাই সুখে থাকেন’ লিখে গৃহবধূর বিষপান
‘সবাই সুখে থাকেন’ লিখে গৃহবধূর বিষপান

গৃহবধূর লেখা সুইসাইড নোট।

‘সবাই সুখে থাকেন’ লিখে গৃহবধূর বিষপান

ফখরুল হাসান পলাশ, দিনাজপুর

‌‘সবাই সুখে থাকেন, ভালো থাকেন’ সুইসাইড নোট লিখে আত্মহত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে খানসামার এক গৃহবধূর।

বাবা-মা, শ্বশুর পরিবার ও স্বামীর প্রতি অভিমান করে দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় জুই রায় (২২) নামে এক গৃহবধূ বিষপানে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার (১১জানুয়ারি) সকালে উপজেলার ভাবকী ইউনিয়নের রামনগর এলাকায়।

নিহত জুঁই রায় ওই এলাকার কমল রায়ের মেয়ে ও ভাবকী গ্রামের শেওরাতলী এলাকার জীবন রায়ের স্ত্রী।

জুঁই রায়ের মৃত্যুর পর এক পাতার সুইসাইড নোট উদ্ধার করে খানসামা থানা-পুলিশ।

সুইসাইড নোটে জুঁই রায় লিখেন, বাবা-মা সবাই ভালো থাকো। মোর শ্বশুর-শাশুড়ি, স্বামী, ননদ, ননদীয়া সবাই ভালো থাকো। মুই মরি গেইলে আরও বিয়াও করিস, সুখে থাকিস, ভালো থাকিস। তোর জীবনে মুই আর কাঁটা হয়া থাকিবার চাও না। মোর আর কোনো ইচ্ছা নাই। তোর জীবন থাকি মুই যদি চলি যাও, তাহলে তোর পছন্দ মতো মেয়েকে বিয়ে করিস। তোর কাছোত মোর কোনো দাম নাই। সবাইকে নিয়ে সুখে থাকিস। সবার চোখের কাঁটা হছু তাই মোর বাঁচি থাকার কোনো ইচ্ছা নাই। সবাই সুখে থাকেন, ভালো থাকো।

শেষ লাইন তার স্বামী জীবনকে উদ্দেশ্য করে জুঁই রায় লিখেছেন, জীবন ভালো থাকিস।

জানা যায়, দেড় বছর আগে পরিবারের সম্মতিতে জুঁই রায় ও জীবন রায়ের বিয়ে হয়। বিয়ের ছয় মাস পরে পারিবারিক ঝামেলায় নিহত জুই রায় বাবার বাড়ি চলে আসে। দীর্ঘ এক বছরেও দুজনের পারিবারিক সমস্যা সুরাহা না হওয়ায় মেয়েটি সবার সাথে অভিমান করে তার বাবার বাড়িতে বিষপান করে। পরে পরিবারের লোকজন টের পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শামসুদ্দোহা মুকুল তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে ওসি কামাল হোসেন বলেন, নিহত জুই রায়ের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে ও এক পাতার সুইসাইড নোট জব্দ করা হয়েছে। সেগুলো যাচাই-বাছাই চলছে।

তিনি আরও বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে এরকম কোনো অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে৷

আরও পড়ুন:

বসুন্ধরার কম্বল পেল শেরপুরের দরিদ্র মানুষ

বাণিজ্যমেলা চলবে কিনা জানা গেল

news24bd.tv তৌহিদ