স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ভোট গ্রহণ হবে : নির্বাচন কমিশনার
স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ভোট গ্রহণ হবে : নির্বাচন কমিশনার

সংগৃহীত ছবি

স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ভোট গ্রহণ হবে : নির্বাচন কমিশনার

অনলাইন ডেস্ক

করোনা প্রতিরোধে যে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে সেটি মেনেই টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনে জাতীয় সংসদের উপনির্বাচনে ভোট গ্রহণ করা হবে। প্রত্যেকটি কেন্দ্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লাইনে দাঁড়ানোসহ স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী রাখা হবে। এমনটাই বলেছেন, নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী (অব.)।  স্বাস্থ্যবিধির বিষয়েও টাঙ্গাইল বাসী খুব সচেতন রয়েছে।

নির্বাচনে করোনার কোন নেতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে আমি মনে করি না।

আগামী ১৬ জানুয়ারি টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনে জাতীয় সংসদের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে টাঙ্গাইল-৭ এর উপনির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন কমিশন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের সাথে মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন তিনি।

শাহাদাত হোসেন চৌধুরী আরও বলেন, অন্যান্য নির্বাচনের চেয়ে টাঙ্গাইল-৭ আসনের উপ-নির্বাচনের পরিবেশ ভাল রয়েছে। এখনও কোন সহিংসতার খবর পাওয়া যায়নি। বর্তমানে যে পরিস্থিতি রয়েছে তাতে আমি বলতে পারি এ উপনির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে।

ভোট কারচুপির বিষয়ে শাহাদত হোসেন চৌধুরী বলেন, ভোট কেন্দ্রের বুথে ডুকে যাতে একজনের ভোট আরেকজন দিতে না পারে, এ বিষয়ে প্রিসাইডিং কর্মকর্তাদের শক্তভাবে নির্দেশনা দিতে হবে। কোন কেন্দ্রে প্রিসাইডিং কর্মকর্তার নিয়ন্ত্রণ না থাকলে ওই কেন্দ্রের ভোট বন্ধ করে দিতে হবে। এটি না করা হলে কমিশন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে।

আরও পড়ুন:

টানা চতুর্থ মেয়াদের জন্য শপথ নিয়েছেন নিকারাগুয়ার প্রেসিডেন্ট

মারা গেলেন ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট

আর এরকম অনেক গুলো কেন্দ্র অনিয়ম হলে হলে পুরো নির্বাচন বন্ধ বন্ধ করতে রিটার্নিং কর্মকর্তাকে নির্দেশনা দেন তিনি। অনিয়ম বা ভোট কারচুপির সাথে কোন প্রার্থীর এজেন্ট জড়িত থাকার বিষয়টি প্রমাণিত হলে তার প্রার্থিতা বাজেয়াপ্তসহ প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।  

প্রসঙ্গত, আগামী ১৬ জানুয়ারি টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনে জাতীয় সংসদের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে পাঁচজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত