গরু চুরি করে জবাই, অতঃপর...
গরু চুরি করে জবাই, অতঃপর...

সংগৃহীত ছবি

গরু চুরি করে জবাই, অতঃপর...

অনলাইন ডেস্ক

গরু চুরির পর জবাই করে মাংস ভাগ-বাটোয়ারার সময় এক ব্যক্তিকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছেন এলাকাবাসী। ১৩ জানুয়ারি ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন কোন্ডা ইউনিয়নের বীর বাঘৈর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, ওই ব্যক্তির নাম  মো. জনি (৫০)। তিনি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানীর আবুল কাশেমের ছেলে।

জনি চার বছর আগে জমি ক্রয় করে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন বীরবাঘৈর এলাকায় একটি বাড়ি তৈরি করে পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছে।  

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ফুল বাবু নামে এক ব্যক্তি সন্ধ্যায় মাঠ থেকে গরু গোয়ালে নিয়ে যাওয়ার জন্য খোঁজাখুঁজি করলে না পেয়ে মসজিদের মাইকে হারানোর ঘোষণা দেয়। তখন স্থানীয় এক কিশোর তাকে জানায়, একটি গরু জনি ও তার কয়েকজন সহযোগী বাড়ির ভেতরে জবাই করতে নিয়ে গেছে। এমন খবর পেয়ে গরুর মালিক এলাকাবাসীদের সহায়তায় সেখানে গিয়ে জনিকে গরু জবাই করতে দেখেন। গরুর মালিক ফুল বাবু নিজের গরুটিকে শনাক্ত করে এবং জনিকে আটক করে। পরবর্তীতে গণপিটুনির দিয়ে জনিকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

এলাকাবাসী ও পুলিশসূত্রে জানা যায়, জনি মূলত একজন প্রতারক। সে বিভিন্ন সময় সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, রাজনৈতিক বড় নেতা পরিচয় দিয়ে থানায় এসে বিভিন্ন তদবিরের চেষ্টা করত।

আরও পড়ুন:


৬ জনকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা: যুবলীগ নেতাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা


এ ব্যাপারে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত খালেদুর রহমান জানান, এলাকাবাসীর মাধ্যমে খবর পেয়ে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে জবাইকৃত গরুর গোশতসহ জনিকে গ্রেপ্তার করি। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে গরু চুরি করে জবাই করার কথা স্বীকার করেছে। জনির বাকী সহযোগীদেরকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে। এ ঘটনায় ফুল বাবু বাদী হয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

news24bd.tv রিমু