পুলিশের নিস্ক্রিয়তায় ঘটছে সব নৃশংস হামলার ঘটনা
পুলিশের নিস্ক্রিয়তায় ঘটছে সব নৃশংস হামলার ঘটনা

পুলিশের নিস্ক্রিয়তায় ঘটছে সব নৃশংস হামলার ঘটনা

পিরোজপুর প্রতিনিধি

পিরোজপুর সদর থানা পুলিশের নিস্ক্রিয় ভূমিকার কারণেই কদমতলা ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনের পরও নৃশংস সব হামলার ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ করেছে উপজেলা যুবলীগের নেতারা।  

যুবলীগের নেতা নাদিমকে কুপিয়ে হাত বিচ্ছিন্ন করার ঘটনায় আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে শনিবার বিকালে পিরোজপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সদর উপজেরা যুবলীগের সভাপতি কে এম মোস্তাফিজুর রহমান বিপ্লব এ অভিযোগ করেন।  

সম্মেলনে তিনি আরোও জানান, গত বৃহস্পতিবার সকালে পিরোজপুর সদর উপজেলার কদমতলা ইউনিয়নে যুবলীগ কর্মী নাদিমের ডান হাত কেটে বিচ্ছিন্নের পরও পুলিশ উল্লেখযোগ্য কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এছাড়া গত বছরের ৮ ডিসেম্বর পার্শবর্তী সিকদার মল্লিক ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রুহুল আমীনের দুই পা ভেঙে দেওয়ার ঘটনায় থানা মামলা গ্রহন করেনি।

এমনকি আদালতের নির্দেশে মামলা নিলেও কোন আসামীকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ। কোন অজ্ঞাত কারণে পুলিশ কদমতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শেখ শিহাব হোসেন এর প্রতি একপেশে ভূমিকা পালন করছে। এতে করে ওই ইউনিয়নে সহিংসতার ঘটনা বাড়ছে বলে দাবি তার।  

আরও পড়ুন:

ভারতের কাছ থেকে মিসাইল সিস্টেম কিনবে ফিলিপাইন

কানাডার রাজধানীতে বাণিজ্যিক ভবনে বিস্ফোরণ

সংবাদ সম্মেলনে জেলা ও উপজেলা যুবলীগের নেতারা ছাড়াও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক উপস্থিত ছিলেন।  

তবে নিজের বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু জাফর মোঃ মাসুদুজ্জামান।  

তিনি বলেন, পুলিশ তার সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে আসামীদের গ্রেফতার করার জন্য। আপনারা জানেন ইতিমধ্যে মামলার ৬নং আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকীদেরও খুব দ্রুত গ্রেফতার করা হবে।

news24bd.tv/আলী