মন্ত্রণালয়ের আশ্বাসে ময়মনসিংহ বিভাগের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার
মন্ত্রণালয়ের আশ্বাসে ময়মনসিংহ বিভাগের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার

পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার

মন্ত্রণালয়ের আশ্বাসে ময়মনসিংহ বিভাগের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার

সৈয়দ নোমান, ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহ বিভাগ থেকে ঢাকামুখী অনির্দিষ্টকালের জন্য ডাকা পরিবহণ ধর্মঘট স্থগিত করা হয়েছে। আজ রোববার (১৬ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ধর্মঘট প্রত্যাহারের এ ঘোষণা দেন জেলা মটর মালিক সমিতি ও ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ড্রাস্ট্রিজ।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জেলা মটর মালিক সমিতির সভাপতি মমতাজ উদ্দিন বলেন, যোগাযোগ সচিবের অনুরোধে এবং ২৬ জানুয়ারি বিভাগীয় কমিশনারের সাথে বৈঠক আহবানের প্রেক্ষিতে ধর্মঘট প্রত্যাহারের সিদ্বান্ত নেয়া হয়েছে। এছাড়া সাধারণ মানুষের দুর্ভোগের বিষয়টিও বিবেচনা করা হয়।

সাংবাদিক সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা মটর মালিক সমিতির মহাসচিব মাহবুবুর রহমান, কোচ সম্পাদক সোমনাথ সাহা, ময়মনসিংহ চেম্বারের সিনিয়র সহ-সভাপতি শংকর সাহা।

উল্লেখ্য, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুর-টঙ্গী অংশে দীর্ঘদিন ধরে যানজট ও সড়কের বেহাল দশাতে ভোগান্তির শিকার হয়ে ক্ষুব্ধ পরিবহন মালিক সমিতি এ ধর্মঘট আহবান করেছিল। এরও আগে ২ জানুয়ারি পরিবহন মালিক সমিতি এক সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে ১৫ জানুয়ারির মাঝে মহাসড়কের ঐ অংশের সংস্কার দাবী করে ছিল। মটর মালিক সমিতি জানায় মহাসড়কের ঐ অংশের জন্য আড়াই ঘণ্টার এ যাত্রাপথে এখন সময় লাগছে ৫ থেকে ৬ ঘণ্টা।

অপরদিকে ব্যবসায়ি সংগঠনের দাবি, গাজিপুর থেকে টঙ্গি পর্যন্ত ১৬ কিলোমিটার সড়ক চলাচল অনুপযোগী। এতে তাদের ১ কোটি ৫০ লাখ টাকার জ্বালানি বেশী খরচ হয় ফলে ময়মনসিংহ বিভাগ থেকে ঢাকামুখী সব ধরনের ব্যবসায়িরা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন।

ধর্মঘটের কারণে রোববার সকাল থেকে ভোগান্তিতে পড়ে ঢাকাগামী যাত্রীরা। অনেকে বাস না পেয়ে বিকল্প পথে দ্বিগুণ ভাড়া দিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। পরিবহন ধর্মঘট স্থগিত হওয়ায় সাধারণ যাত্রীদের মাঝে স্বস্তি নেমে এসেছে। তবে সাধারণ যাত্রীরাও মহাসড়কের ঐ অংশের ভোগান্তি দুর করতে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

আরও পড়ুন


নাটোরের দুই পৌরসভায় প্রথমবারের মতো ইভিএমে ভোট

news24bd.tv এসএম