নিজ বাড়ির উঠান থেকে প্রবাসীর স্ত্রী-মেয়ের মরদেহ উদ্ধার
নিজ বাড়ির উঠান থেকে প্রবাসীর স্ত্রী-মেয়ের মরদেহ উদ্ধার

প্রতীকী ছবি

নিজ বাড়ির উঠান থেকে প্রবাসীর স্ত্রী-মেয়ের মরদেহ উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ হাতিয়ায়  লুৎফা বেগম (৪৫) ও চাঁদনী বেগম (৭) নামের দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তারা সম্পর্কে মা ও মেয়ে।  

আজ বিকেলে হাতিয়া পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের গুইল্যাখালী গ্রাম থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত  লুৎফা বেগম হাতিয়া উপজেলার গুইল্যাখালী গ্রামের ওমান প্রবাসী মো. রবিউল হোসেনের স্ত্রী।

আর চাঁদনী বেগম তার মেয়ে।

স্থানীয় লোকজন জানান, স্বামী বিদেশে থাকায় গুইল্যাখালী গ্রামের বাড়িতে মেয়ে চাঁদনীকে নিয়ে থাকতেন লুৎফা বেগম। দুপুরে বড় মেয়ে নাদিয়া সোনাদিয়া ইউনিয়নের স্বামীর বাড়ি থেকে মায়ের বাড়িতে আসেন। এসময় বাড়ির উঠানে মা লুৎফা বেগম ও ছোট বোন চাঁদনীর মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

হাতিয়া থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) কাঞ্চন কান্তি দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করেছেন।

তিনি বলেন, শিশু চাঁদনীর শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন নেই। তবে তার মায়ের কোমরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।  

কাঞ্চন কান্তি দাস বলেন, মরদেহ দুটির ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানা যাবে। এছাড়া এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

news24bd.tv/ নাজিম

;