শিমুর নিখোঁজের নাটক সাজিয়েও পার পেলেন না নোবেল
শিমুর নিখোঁজের নাটক সাজিয়েও পার পেলেন না নোবেল

ফাইল ছবি

শিমুর নিখোঁজের নাটক সাজিয়েও পার পেলেন না নোবেল

অনলাইন ডেস্ক

স্ত্রীর নিখোঁজে পুলিশি সহায়তা চেয়ে থানায় জিডি করেছিলেন। গণমাধ্যমের সামনেও জানিয়েছিলেন উদ্বিগ্নতার কথা। কিন্তু পুলিশের তদন্তে বেরিয়ে এল স্ত্রীকে হত্যার ভয়ঙ্কর তথ্য। বলছি অভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমুর হত্যা রহস্যের কথা।

পুলিশ জানিয়েছে, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে খুনের কথা স্বীকার করেছে স্বামী নোবেল। হত্যাকাণ্ডে তার বন্ধুও জড়িত বলে দাবি পুলিশের। দু’জনকে তিনদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। নাঈম আল জিকোর

রোববার রাজধানীর কলাবাগানের বাসা থেকে নিখোঁজ হন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমু। দিনভর খোঁজ না মেলায় কলাবাগান থানায় জিডি করেন স্বয়ং তার স্বামী নোবেল।

আরও পড়ুন:

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীকে দশ হাজার ইউরো জরিমানা 

আবুধাবি বিমানবন্দরের কাছে তিনটি তেলের ট্রাকে বিস্ফোরণ

সোমবার সকালে কেরাণীগঞ্জে মেলে তার বস্তাবন্দি মরদেহ। এসময় তার মৃত্যু নিয়ে তৈরি হয় নানা বিতর্কের। পরে ঘটনাস্থল ও স্বজনদের সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে এ ঘটনায় শিমুর স্বামী ও তার বন্ধুকে আটক করে কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ। এসময়, লাশ বহনের কাজে ব্যবহৃত সন্দেহে একটি গাড়িও জব্দ করা হয়।

পরে মঙ্গলবার পুলিশ জানায়, শিমুর স্বামী নোবেল এই হত্যার দায় স্বীকার করেছে। কারণ হিসেবে পারিবারিক কলহকেই দায়ী করছেন তারা।

এদিকে, প্রেমের বিয়ে ও ১৮ বছরের সংসারের পর শিমুর স্বামী এই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে জেনে হতবাক পরিবারের সদস্যরা।
এই হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু বিচার চেয়েছেন শিমুর স্বজনরা।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

;