দোকানে ঢিল ছোড়ায় শিশুকে মধ্যযুগীয় নির্যাতন
দোকানে ঢিল ছোড়ায় শিশুকে মধ্যযুগীয় নির্যাতন

ছোয়াদ

দোকানে ঢিল ছোড়ায় শিশুকে মধ্যযুগীয় নির্যাতন

নাজমুল হুদা, সাভার

সাভারের কর্ণপাড়া এলাকায় বেখেয়ালে দোকানে ঢিল ছোড়ায় ছোয়াদ (৬) নামের এক শিশুকে মধ্যযুগীয় কায়দায় মারধর করেছেন দোকানি শাহ আলম। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন ভুক্তভোগীর বাবা। মঙ্গলবার সন্ধ্যার সাভারের উলাইলের কর্ণপাড়া এলাকার শাহ-আলমের দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী ছোয়াদ সাভারের উলাইলের কর্ণপাড়া এলাকার মোখলেছুর রহমানের ছেলে।

সে তার মা-বাবার সঙ্গে ওই এলাকায় বসবাস করে আসছিল।

অভিযুক্ত শাহ আলম একই এলাকার মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে। তিনি মুদি দোকান ব্যবসায়ী।

জিডি সূত্রে জানা যায়, ওই দোকানের সামনে ধুলাবালু নিয়ে খেলা করছিল শিশু ছোয়াদ। এ সময় না বুঝে দোকানে ছোট একটি ঢিল ছুড়ে মারে সে। এ সময় ক্ষিপ্ত হয়ে ছোয়াদকে পা ধরে আছাড় মারেন দোকানি শাহ আলম। আধা ঘণ্টা ধরে পা দিয়ে লাথি ও কিল-ঘুষি মেরে আহত করে। পরে ছোয়াদের চিৎকারে তার বাবা মোখলেছ ঘটনাস্থলে গেলে ঘটনা জানতে চান। এ সময় তাদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাদেরও মারার জন্য তেড়ে আসেন শাহ আলম।

আরও পড়ুন:


 

রাজধানীতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় সাংবাদিক নিহত


পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ছোয়াদকে উদ্ধার করে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন মোখলেছ।

সাভার মডেল থানার ডিউটি অফিসার সাদরুজ্জামানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জিডির দায়িত্বপ্রাপ্ত তদন্ত কর্মকর্তা শিউলি আক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেন। তবে সাভার থানার উপপরিদর্শক শিউলি আকতারের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া সম্ভব হয়নি।  

news24bd.tv রিমু

;