কয়েদির পেটে মোবাইল!
কয়েদির পেটে মোবাইল!

ফাইল ছবি

কয়েদির পেটে মোবাইল!

অনলাইন ডেস্ক

কারাগারে কয়েদিদের মোবাইল রাখা সম্পুর্ণ নিষিদ্ধ। কিন্তু তারপরও দেখা যায় অনেকসময় কয়েদিদের মোবাইল রাখতে। যদিও বা সেটার পরিমাণ খুবই অল্প। তারপরও অনেক কয়েদি লুকিয়ে  মোবাইল ফোন রাখার ঝুঁকি নেন।

তেমনই এক কয়েদি কারাগারে লুকিয়ে মোবাইল রেখেছিলেন। কিন্তু কর্তৃপক্ষের কাছে ধরা পড়ার ভয়ে সেটা গিলে ফেলেন তিনি। যদিও পরে মোবাইল ফোনটি ওই কয়েদির পেট থেকে বের করা হয়েছে। খবর গালফ নিউজ।

সাত সেন্টিমিটার লম্বা ও তিন সেন্টিমিটার চওড়া মোবাইল ফোনটি চিকিৎসকরা এন্ডোস্কপির মাধ্যমে ওই কয়েদির মুখ দিয়েই বের করে আনেন।

ভারতের দিল্লির তিহার কারাগারে এই ঘটনা ঘটে ।

এই বিষয়ে দিল্লির একটি হাসপাতালের গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজি বিভাগের চিকিৎসক ড. সিদ্ধার্থ জানান, কোনো কিছু খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়া ওই কয়েদিকে গত ১৫ জানুয়ারি হাসপাতালে আনা হয়। এক্স-রে করে চিকিৎসকরা ধারণা করেন তার পেটে মোবাইল ফোন আছে।  এরপর এন্ডোস্কপির মাধ্যমে মুখ দিয়ে  মোবাইল ফোনটি বের করে আনা হয়। ওই কয়েদি এখন সুস্থ আছেন বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

ড. সিদ্ধার্থ জানান, মোবাইল ফোন গিলে ফেলা কঠিন। তবে অভ্যাস করলে বিষয়টি অসম্ভব নয়। সাধারণত কয়েদিরা কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে লুকিয়ে রাখতে মোবাইল ফোন গিলে ফেলা অভ্যাস করেন। তবে এর জন্য অবশ্যই দক্ষতা থাকা দরকার।
news24bd.tv/আলী   

;