কোরআনের বর্ণনায় জাহান্নামের দরজা
কোরআনের বর্ণনায় জাহান্নামের দরজা

প্রতীকী ছবি

কোরআনের বর্ণনায় জাহান্নামের দরজা

মুফতি আবদুল্লাহ নুর 

পবিত্র কোরআনে জান্নাত ও জাহান্নামের বর্ণনা এসেছে। এসব বর্ণনায় জান্নাত ও জাহান্নামের দরজার বিবরণও এসেছে। কিয়ামতের দিন জান্নাতিদের জন্য জান্নাতের দরজা উন্মুক্ত করা হবে এবং জাহান্নামিদের জন্য জাহান্নামের দরজা খোলা হবে। নিম্নে কোরআনের আলোকে জান্নাত ও জাহান্নামের দরজার বিবরণ তুলে ধরা হলো—

জাহান্নামের দরজা সাতটি : পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘অবশ্যই জাহান্নাম তাদের সবারই প্রতিশ্রুত স্থান।

তার সাতটি দরজা আছে, প্রত্যেক দরজার জন্য পৃথক পৃথক শ্রেণি আছে। ’ (সুরা হিজর, আয়াত : ৪৩-৪৪)

জাহান্নামের সাত দরজার নাম : আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন, জাহান্নামের সাতটি দরজা হলো—জাহান্নাম, সায়ির, লাজা, হুতামা, সাকার, জাহিম ও হাভিয়া। (তাফসিরে ইবনে আবি হাতিম, পৃষ্ঠা ২২৬৫)

প্রত্যেক শ্রেণির জন্য পৃথক দরজা : নিজেদের আমল অনুসারে জাহান্নামি ব্যক্তিরা জাহান্নামের পৃথক দরজা দিয়ে প্রবেশ করবে। আল্লাহ বলেন, ‘তার (জাহান্নামের) সাতটি দরজা আছে, প্রত্যেক দরজার জন্য পৃথক পৃথক শ্রেণি আছে। ’ (সুরা হিজর, আয়াত : ৪৪)

জাহান্নামিরা প্রবেশ করতে চাইবে না : জাহান্নামিরা জাহান্নামে স্বেচ্ছায় প্রবেশ করবে না; বরং তাদের টেনে নিয়ে যাওয়া হবে। ইরশাদ হয়েছে, ‘অবিশ্বাসীদের জাহান্নামের দিকে দলে দলে হাঁকিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে’। (সুরা ঝুমার, আয়াত : ৭১)

দলে দলে প্রবেশ করানো হবে : জাহান্নামিদের দলে দলে জাহান্নামে প্রবেশ করানো হবে। ইরশাদ হয়েছে, ‘অবিশ্বাসীদের জাহান্নামের দিকে দলে দলে হাঁকিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। ’ (সুরা ঝুমার, আয়াত : ৭১)

প্রবেশের সময় ভর্ত্সনা : জাহান্নামের দরজা দিয়ে প্রবেশের সময় জাহান্নামিদের ভর্ত্সনা করা হবে। ইরশাদ হয়েছে, ‘তোমাদের কাছে কি তোমাদের মধ্য থেকে রাসুল আসেনি, যারা তোমাদের কাছে তোমাদের প্রতিপালকের আয়াত আবৃত্তি করত এবং এই দিনের সাক্ষাৎ সম্বন্ধে তোমাদের সতর্ক করত?’ (সুরা ঝুমার, আয়াত : ৭১)

চিরদিনের জন্য প্রবেশ : অবিশ্বাসীরা জাহান্নামের দরজা দিয়ে চিরদিনের জন্য প্রবেশ করবে। আর পাপী মুমিনরা শাস্তি ভোগ করে তা থেকে বের হয়ে আসবে। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘তাদের বলা হবে, জাহান্নামের দরজাগুলোতে প্রবেশ কোরো তাতে স্থায়ীভাবে অবস্থিতির জন্য। কত নিকৃষ্ট উদ্ধতদের আবাসস্থল। ’ (সুরা ঝুমার, আয়াত : ৭২)

আরও পড়ুন:


যে দোয়ায় অনবরত সওয়াব লেখা হয়


শাস্তির সময় দরজা বন্ধ থাকবে : জাহান্নামিরা জাহান্নামে প্রবেশের পর তার দরজা বন্ধ করে দেওয়া হবে। ইরশাদ হয়েছে, ‘আর যারা আমার নিদর্শন প্রত্যাখ্যান করেছে, তারাই হতভাগ্য। তারা পরিবেষ্টিত হবে অবরুদ্ধ আগুনে। ’ (সুরা বালাদ, আয়াত : ১৯-২০)

যে সময় জাহান্নামের দরজা বন্ধ থাকে : আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘যখন রমজান আগমন করে জান্নাতের দরজা খুলে দেওয়া হয় এবং জাহান্নামের দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয়। আর শয়তানকে শৃঙ্খলিত করা হয়। ’ (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৩২৭৭)

আল্লাহ সবাইকে জাহান্নাম থেকে রক্ষা করুন। আমিন।

news24bd.tv রিমু

;