অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে যৌতুকের দাবিতে পিটিয়ে হত্যা
অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে যৌতুকের দাবিতে পিটিয়ে হত্যা

প্রতীকী ছবি

অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে যৌতুকের দাবিতে পিটিয়ে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

জান্নাতি খাতুন (২০) নামে এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে যৌতুকের দাবিতে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জান্নাতির স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িসহ চার জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 রংপুর নগরীর তাজহাট থানার ওসি আখতারুজ্জামান প্রধান বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এর আগে গতকাল বুধবার বিকেলে নগরীর ধর্মদাস লক্ষণপাড়া এলাকা থেকে জান্নাতির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত জান্নাতি খাতুন ওই এলাকার আতাউর রহমানের ছেলে তুহিনের স্ত্রী। ঘটনার পর থেকে তুহিনসহ পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছেন।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, বছর দুয়েক আগে তুহিনের সঙ্গে বিয়ে হয় জান্নাতির। এ সময় জান্নাতির পরিবার থেকে যৌতুক দেওয়া হয়। কিন্তু বিয়ের পর আরো যৌতুকের দাবি করে জান্নাতির স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ি। এ নিয়ে প্রায় তাকে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করা হত।

ঘটনার দিন আবারও যৌতুকের দাবিতে অন্তঃসত্ত্বা জান্নাতিকে বেধরক পেটানো হয়। এতে ঘটনাস্থলেই জান্নাতির মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় জান্নাতির বাবা বাদী হয়ে তুহিনসহ চারজনকে আসামি করে তাজহাট থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

আরও পড়ুন: প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণ!

জান্নাতির বাবা জাঙ্গীর আলম অভিযোগ করে বলেন, যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় আমার মেয়েটাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। আমি এর বিচার চাই।

রংপুর মহানগরের তাজহাট থানার ওসি আখতারুজ্জামান প্রধান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সুরতহাল প্রতিবেদনে জান্নাতির গলায় ও পাঁজরে আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

news24bd.tv/ কামরুল 

;