সিভিল প্রশাসনকে সহায়তায় প্রস্তুত সেনাবাহিনী

সিভিল প্রশাসনকে সহায়তায় প্রস্তুত সেনাবাহিনী

জয়দেব দাশ

করোনা পরিস্থিতি বাধা না হলে চলতি সংসদ অধিবেশনেই পাশ হতে পারে নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ আইন। এছাড়া প্রয়োজনীয় সংশোধনীর দরকার হলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনেও আসতে পারে সংশোধনী। জেলা প্রশাসকদের সাথে বৈঠক শেষে এসব জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী। আর বিভিন্ন অপপ্রচার বন্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যকহারের বিষয়টি নজরদারিতে রাখতে ডিসিদের নির্দেশ দিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী।

আর সেনাপ্রধান জেনারেল এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন, সিভিল প্রশাসনকে সহায়তা করতে সেনাবাহিনী সব সময় প্রস্তুত আছে।

তিন দিনের জেলা প্রশাসক সম্মেলনের শেষ দিন সকালে সেনা প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেন, সামরিক ও বেসামরিক প্রশাসন একসাথে কাজ না করলে অভিষ্ঠ লক্ষ্যে পৌঁছানো যায় না। সিভিল প্রশাসনের ডাকে সেনাবাহিনী সব সময় সহযোগিতা করতে প্রস্তুত আছে।
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বলেছেন, সোস্যাল মিডিয়ায় প্রচারের চেয়ে অপপ্রচার বেশী হয়। অপপ্রচার রোধে জোরালো ভূমিকা রাখতে ডিসিদের নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

স্থানীয় র্পযায়ে নিস্পত্তিযোগ্য বিষয়গুলো ঢাকায় না পাঠিয়ে নিজেরাই দ্রুত সমাধান করতে ডিসিদের নির্দেশ দিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী।  
আইনমন্ত্রী বলেছেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে অনেক কথা হলেও বিভিন্ন দেশ এখন বাংলাদেশকে অনুসরণ করছে। কথা বলেন, নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ আইন প্রসঙ্গেও।  

ভূমিমন্ত্রী জানান, জমির নামজারি প্রায় শতভাগ ডিজিটাল করা হয়েছে। দেশব্যাপী ডিজিটাল জরিপের পাইলট প্রকল্পও শুরু হবে। বিশেষ বিবেচনা ছাড়া হবে না আমমোক্তার নামা । তবে প্রবাসীরা দূতাবাসের সুবিধা পাবেন।  

পশুখাদ্যে ভেজাল রোধ, কারেন্ট জালে মাছ ধরা বন্ধ ও নদীর দখল- দূষণ রোধে মাঠ প্রসাশনের আরো জোড়ালো ভূমিকা চেয়েছেন মন্ত্রীরা।  

news24bd.tv/আলী  

;