৩০০ মেয়েকে ‘না’ বলে অ্যাপ বানালো যুবক!
৩০০ মেয়েকে ‘না’ বলে অ্যাপ বানালো যুবক!

সংগৃহীত ছবি

৩০০ মেয়েকে ‘না’ বলে অ্যাপ বানালো যুবক!

অনলাইন ডেস্ক

নিজের মনের মত সঙ্গী খুঁজে নিতে আজকাল অনেকেই ডেটিং অ্যাপের সাহায্য নেয়। কিন্তু সবার কপালে তো আর মনের মত সঙ্গী সেখানেও জোঁটে না। এমনই এক যুবকও ডেটিং অ্যাপে ৩০০ জনকে দেখেও যোগ্য সঙ্গী খুঁজে পাননি। তাই আর উপায় না দেখে সেই যুবক নিজেই খুলে বসেন  একটি সোশ্যাল অ্যাপ।

৩১ বছর বয়সী বিট্রিশ জোশ বুড এই কাজ করেন।

৩১ বছর বয়সী জোশ বুড ২০-২২ বছর বয়স থেকেই নিজের ফোন থেকে বিভিন্ন ডেটিং অ্যাপ ব্যবহার করেন। কিন্তু কোথাও মনের মত সঙ্গী পায়নি সে। এরপরেই তিনি নিজের মতো করে শুরু করেন লাইফ পার্টনার খোঁজার কাজ। এ জন্য জোশ বুড নিজেই লঞ্চ করেন একটি সোশ্যাল অ্যাপ।

জোশ বুড জানিয়েছেন, তিনি বহু বছর ধরে ডেটিং অ্যাপে নিজের জন্য পার্টনার খুঁজে চলেছেন। প্রায় ৩০০-র বেশি প্রোফাইলের সঙ্গে তার প্রোফাইল ম্যাচ করার পরেও তিনি খুঁজে পাননি তার আসল লাইফ পার্টনার। লন্ডনে আসার পরেও তিনি এক বছর ধরে খুঁজতে থাকেন তার লাইফ পার্টনার। কিন্তু কোনো মেয়েকে তিনি পার্টনার হিসেবে খুঁজে পাননি। জোশ বুড নিজের জন্য কোনো পার্টনার ডেটিং অ্যাপে খুঁজে না পেলেও একটি ক্লাবে তিনি দেখা পায় চেলসিয়ার। চেলসিয়া সেই সময় থেকেই জোশ বুডের সঙ্গে রয়েছেন।

জোশ বুড নিজের সঙ্গে ঘটা এই ঘটনা থেকে উদ্বুদ্ধ হয়ে ব্লক নামের একটি অ্যাপ তৈরি করেন, যা বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল ইভেন্ট কভার করে এবং সকলে এর মাধ্যমে ডেটিং করতে পারে। এই অ্যাপের মাধ্যমে স্টেডিয়াম, রেস্তোরাঁ, বার ইত্যাদির মতো সোশ্যাল জমায়েতের জায়গা কভার করা হয়। এখানে নিজেদের পছন্দ মতো জায়গায় সেই অ্যাপ ব্যবহার করে চেক ইন করা যায়। সেই সকল জায়গায় আসা বিভিন্ন লোকদের সঙ্গে অ্যাপের মাধ্যমে সাক্ষাৎ করা সম্ভব হয়। এর ফলে সেখান থেকে বেছে নেয়া যেতে পারে নিজের পছন্দের পার্টনার। নিজের জীবনের থেকে শিক্ষা নিয়ে জোশ বুড শুরু করেছেন এই সোশ্যাল অ্যাপ।

সুত্র :  নিউজ এইটিন।

news24bd.tv/আলী   

;