জ্বর হলে আরামে থাকুন ৭ উপায়ে
জ্বর হলে আরামে থাকুন ৭ উপায়ে

জ্বর হলে আরামে থাকুন ৭ উপায়ে

অনলাইন ডেস্ক

কয়েক বছর থেকে করোনা সংক্রমণে অতিষ্ঠ মানুষ। সংক্রমণ কখনো বাড়ছে কখনো কমছে। তাছাড়া ঋতু পরিবর্তনের কারণে জ্বর, সর্দি, কাশি গলায় ব্যাথাসহ ঠান্ডাজনিত নানা রোগে ভুগছে মানুষ।  

এই পরিস্থিতিতে শরীরে ১০০ ডিগ্রি ফারেনহাইটের বেশি তাপমাত্রা থাকলে কী করবেন? কীভাবে মিলবে আরাম?

১।

প্রচুর পরিমাণে তরল পদার্থ সেবন করুন: জ্বর শরীরে যত বেশি হবে ততই ডি-হাইড্রেশন বাড়ে। তাই সেই সময় প্রচুর পরিমাণে পানি খাওয়া উচিত। সেই সঙ্গে সম্ভব হলে ফলের রস, হার্বাল চাও খেতে পারেন। উপকার মিলবে অনেকটাই।

২। আরাম করুন: সংক্রমণ থেকে তাড়াতাড়ি সেরে উঠতে জ্বরের রোগীকে যতটা সম্ভব ততটাই ঘুমানো উচিত। তাতে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে।

৩। হালকা গরম পানিতে গোসল করুন: শরীরে তাপমাত্রা কমাতে হালকা গরম পানিতে স্নান করুন। স্নান করলে মাংসপেশীতে অনেকটাই আরাম পাওয়া যাবে।

৪। হালকা জামাকাপড় পড়ুন: সাধারণভাবে জ্বর হলে আমরা মোটা জামাকাপড় পড়ি। সেই সঙ্গে ঘরে থাকা মোটা কিছু জড়িয়ে রাখতে চেষ্টা করি। কিন্তু মনে রাখতে হবে এর ফলে জ্বর আরও বাড়তে পারে। তাই জ্বর বেশি হলে উচিত হালকা জামাকাপড় পড়া।

৫। স্পঞ্জ করুন: স্নান না করতে পারলেও, শরীরের তাপমাত্রা কমাতে ঠান্ডা পানিতে স্পঞ্জ করতে হবে। মূলত মাথা এবং গলায় নজর বেশি রাখতে হবে। স্পঞ্জ করে সঙ্গে সঙ্গেই নিজেকে ঢেকে নিন গরম কিছু দিয়ে। তাতে, জ্বরের ফলে বেড়ে যাওয়া তাপমাত্রা কিছুটা কমবে।

৬। বরফে আরাম : যদি ঠান্ডা লেগে জ্বর না হয়, তাহলে এই কাজটি আপনি করতে পারেন। ঘরে যদি ফল থাকে তাহলে তার রস ফ্রিজে রেখে আইস কিউব বানিয়ে খান। তাতে শরীরের তাপমাত্রাও যেমন নামবে, তেমনই পানির মাত্রা ঠিক করবে।

৭। গার্গেল করুন: ঠান্ডা লেগে গলায় ব্যথা হলে এবং জ্বর এলে বারবার গার্গেল করুন। তাতে গলায় আমার পাওয়া যাবে। এক গ্লাস গরম পানিতে আদা চামুচ লবন দিয়ে গার্গেল করুন।

আরও পড়ুন


‘বসুন্ধরার মালিকে কম্বল পাডাইছে, ইশ্বর তার বালা করুক’

news24bd.tv তৌহিদ

;