স্ত্রী-সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা, স্বামী আটক
স্ত্রী-সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা, স্বামী আটক

স্ত্রী-সন্তানকে হত্যা, কাপড় ব্যবসায়ীকে আটক

স্ত্রী-সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা, স্বামী আটক

নাটোর প্রতিনিধি:

পারবারিক কলহের জেরে নাটোর শহরের উপকণ্ঠে স্ত্রী-সন্তানকে হত্যা করেছে এক পুরাতন কাপড় ব্যবসায়ী। এই ঘটনায় আব্দুস সাত্তার নামে কাপড় ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহতরা হচ্ছে, সদর উপজেলার গোয়ালডাঙ্গা এলাকার নেছের প্রামানিকের মেয়ে মাছুরা বেগম (২০) এবং তার শিশু কন্যা মাহমুদা খাতুন (৩)।

নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুনছুর রহমান জানান, গত শনিবার রাত ১২টার দিকে পারিবারিক কলহের জের ধরে নাটোর শহরের উত্তরচৌকিরপার এলাকার পুরাতন কাপড় ব্যবসায়ী আব্দুস সাত্তার তার স্ত্রী মাছুরা বেগম এবং তিন বছরের শিশু কন্যা মাহমুদা খাতুনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে আব্দুস সাত্তার।

এ সময় হত্যার পর আত্মহত্যা হিসেবে চালিয়ে দেওয়ার জন্য গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলিয়ে রাখে সে। পরে আব্দুস সাত্তারের বোন গিয়ে তাদের মরদেহ নামিয়ে নিজ ঘরে রাখে। ওই বাড়িতে কাউকে প্রবেশ করতে না দেওয়ার কারণে বিষয়টি অজ্ঞাত ছিল এলাবাসীরা।

আরও পড়ুন: বিধবা নারীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক, এসআইয়ের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

পরে রোববার দুপুরে বিষয়টি জানাজানি হলে পুলিশে খবর দেয় এলাকাবাসি। পরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।  

এই ঘটনায় নিজ বাড়ি থেকেই আব্দুস সাত্তারকে আটক করেছে পুলিশ। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারেক যুবায়ের, সদর থানার ওসি মুনুছর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এলাকাবাসীরা জানান, পুরাতন কাপড় ব্যবসায়ী আব্দুস সাত্তার তার বাড়িতে কাউকে প্রবেশ করতে দিত না। গতরাতে এলাকাবাসীরা তার স্ত্রীর চিৎকার শুনেছে। পরে দুপুরে বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকাবাসীরা পুলিশের খবর দেয়।

নিহত মাছুরার পিতা নেছের প্রামানিক জানান, কয়েক দিন আগে এনজিও থেকে ৫০ হাজার টাকার কিস্তি তুলেছিল তার মেয়ে। কিস্তির দিন আসলেই তাদের মধ্যে ঝগড়া হতো। এই নিয়েই বিরোধ চলে আসছিল।

নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারেক যুবায়ের জানান, আমরা একজনকে আটক করেছি। তবে ময়নাতদন্ত ছাড়া কিছু বলা যাচ্ছে না।

news24bd.tv/ কামরুল 

;