ফরজ নামাজ ছেড়ে দেওয়ার শাস্তি
ফরজ নামাজ ছেড়ে দেওয়ার শাস্তি

ফরজ নামাজ ছেড়ে দেওয়ার শাস্তি

অনলাইন ডেস্ক

নামাজ ইসলামের পঞ্চ স্তম্ভের অন্যতম ও শ্রেষ্ঠ শারীরিক ইবাদত। নামাজের ব্যাপারে প্রিয়নবী বারবার তাগিদ দিয়েছেন।  ফরজ নামাজ আদায় না করা ভয়াবহ গোনাহের কাজ।

ফরজ নামাজ বিনা কারণে ছেড়ে দিলে বা ইচ্ছেকৃতভাবে ত্যাগ করলে পরিণতি হলো- জাহান্নাম।

ইচ্ছাকৃত ফরজ নামাজ ছেড়ে দিলে মহান আল্লাহ ওই ব্যক্তির ওপর থেকে তার জিম্মাদারি বা রক্ষণাবেক্ষণ তুলে নেন।  

হজরত মুআজ (রা.) বলেন, হজরত রাসুলুল্লাহ (সা.) আমাকে দশটি নসিহত করেন, তার মধ্যে বিশেষ একটি এটাও যে তুমি ইচ্ছাকৃত ফরজ নামাজ ত্যাগ করো না। কারণ যে ব্যক্তি ইচ্ছাকৃত ফরজ নামাজ ত্যাগ করল তার ওপর আল্লাহতায়ালার কোনো জিম্মাদারি থাকল না। ’ -মুসনাদ আহমাদ : ৫/২৩৮

হজরত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেন, ‘কোনো ব্যক্তি এবং কুফর ও শিরকের মধ্যে ব্যবধান শুধু নামাজ না পড়া। যে নামাজ ছেড়ে দিল সে কাফের হয়ে গেল (কাফেরের মতো কাজ করল)। ’ -সহিহ মুসলিম : ৮২।

অন্য হাদিসে হজরত রাসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, ‘আমাদের ও কাফেরদের মধ্যে ব্যবধান শুধু নামাজের। যে নামাজ ত্যাগ করল সে কাফের হয়ে গেল। ’ -তিরমিজি : ২৬২১।

news24bd.tv/ নাজিম

;