ইউক্রেনে হামলা চালালে রাশিয়ার পরিণতি ভয়ংকর হবে
ইউক্রেনে হামলা চালালে রাশিয়ার পরিণতি ভয়ংকর হবে

সংগৃহীত ছবি

ইউক্রেনে হামলা চালালে রাশিয়ার পরিণতি ভয়ংকর হবে

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্র এবং পশ্চিমারা বারবার হুমকি দিয়ে আসছে, ইউক্রেনে হামলা চালালে রাশিয়ার পরিণতি হবে ভয়ংকর। এই ইস্যুতে কিয়েভের পাশে থাকার কথাও জানিয়েছে তারা। তবে পুতিন প্রশাসন যদি সত্যিই ইউক্রেন দখল করে, তাহলে পশ্চিমারা নিষেধাজ্ঞা ছাড়া কিয়েভকে কতোটা সহায়তা করতে পারবে  তা নিয়েই প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।  

ইউক্রেনের তিন দিকে রাশিয়া ১ লাখের বেশি সৈন্য মোতায়েন করেছে।

 সেখানে  রুশ বিচ্ছিন্নতাবাদীরাও রয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাশিয়ার সৈন্যরা যদি পুরোদমে আক্রমণ চালায়, তাহলে ইউক্রেন সৈন্যদের পিছু হটতে বাধ্য হবে। ইউক্রেনের বন্দরও যেতে পারে রাশিয়ার দখলে । মোট কথা পূর্ব ইউক্রেনের অর্ধেকই দখল করতে পারে পুতিন প্রশাসন।

এখন প্রশ্ন উঠেছে, রাশিয়া যদি ইউক্রেনে হামলা করে, তবে তা মোকাবেলার সামর্থ্য কতোটা আছে ইউক্রেনের? কারণ রাশিয়ার ট্যাংকের মাত্র এক ভাগ আছে ইউক্রেনের। যদিও ২০১৪ সালের পর থেকে  ইউক্রেনকে প্রতি বছর ৪০ কোটি ডলারের অস্ত্র সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। শনিবারও কিয়েভে ২০ কোটি ডলারের মারণাস্ত্র পাঠিয়েছে ওয়াশিংটন। ব্রিটেনও ট্যাংক বিধ্বংসী অস্ত্র দিচ্ছে। তুরস্কও সরবরাহ করেছে সশস্ত্র ড্রোন । তবুও মস্কোর প্রস্তুতির তুলনায় তা নগণ্য।

এরই মধ্যে  যু্ক্তরাষ্ট্র তার অবস্থান স্পষ্ট করেছে। জানিয়েছে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট যদি সৈন্য পাওয়ার আশা করেন তাহলে সেটি ভুল হবে। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, রাশিয়ার বিরুদ্ধে পশ্চিমাদের প্রধান অস্ত্র- নিষেধাজ্ঞা। পাশাপাশি ইউক্রেনে অস্ত্র এবং উপদেষ্টা পাঠানো হতে পারে।

আরও পড়ুন:

ক্যামেরুনে নাইটক্লাবে ভয়াবহ আগুনে অন্তত ১৬ জন নিহত

ডিজিটাল মুদ্রার দিকে দৃষ্টি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ 

তবে এই ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ন্যাটো একমত হলেও ইউরোপের মতবিরোধ আছে। ইইউ বলছে, রাশিয়া ভবিষ্যত্ নিয়ে কেবল যুক্তরাষ্ট্রের ওপর নির্ভর করতে পারে না। কারণ ইউরোপের গ্যাসের তিন ভাগের এক ভাগ আসে রাশিয়া থেকে। সতর্ক করে,ইউরোপ ন্যাটোর সঙ্গে ঐক্যবদ্ধ থাকবে এবং রাশিয়ার সঙ্গে নিজস্ব পদ্ধতিতে আলোচনা চালাবে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত 

;