ভাত খেতে বসে পানি পান কেন করবেন না
ভাত খেতে বসে পানি পান কেন করবেন না

সংগৃহীত ছবি

ভাত খেতে বসে পানি পান কেন করবেন না

অনলাইন ডেস্ক

আমরা সকলেই জানি পানির অপর নাম জীবন। আমাদের সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে হলে প্রতিদিনই পানি পান করতে হয়। চিকিৎসকরাও সুস্থ জীবনযাপনের জন্য প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করতে বলে থাকেন। পানি শরীর থেকে দূষিত পদার্থ বের করা, শরীরে অক্সিজেনের জোগান দেওয়ার মতো কাজ করে।

ফলে নিয়ম করে প্রতিদিন পানি পান করা জরুরি। প্রাচীন চিকিৎসা শাস্ত্রের মতে, ভুল পদ্ধতিতে পানি খেলে উল্টো কুপ্রভাব পড়তে পারে শরীরের ওপর। সেক্ষেত্রে হতে পারে খাবার হজমে সমস্যা।

আমরা সাধারণত এক গ্লাস পানি নিয়ে ভাত খেতে বসি। আর পান্তা ভাত তো পানিতে ভাসে। কিন্তু অনেকে বলেন, খাওয়ার মাঝে পানি খেলে ক্ষতি হয়। পানি তাহলে কখন খাওয়া উচিত? এ নিয়ে মতভেদ থাকলেও কয়েকটি বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া যেতে পারে।

প্রথমত কোনো ভারী খাবার খাওয়ার মাঝে পানি খেতে ‌একেবারেই নিষেধ করা হয়। এমনকি, খেতে বসার ঠিক আগে কিংবা খেয়ে উঠে সঙ্গে সঙ্গে পানি খেলেও হতে পারে হজমের সমস্যা। কারণ এ সময়ে শরীরে পানি ঢুকে গ্যাসট্রিক জ্যুসের সঙ্গে মিশে যেতে পারে। তার ফলে এর কাজের ক্ষমতা কমে গিয়ে খাবার হজম হতে বেশি সময় লাগতে পারে। তাই খুব তেষ্টা পেলেও হয় খাওয়ার ৩০ মিনিট আগে পানি খান, না হলে খাওয়ার আধা ঘণ্টা পর খান। একটু অপেক্ষা করুন। খাওয়ার মাঝে খুব গলা শুকিয়ে গেলে দু’-এক চুমুক পানি খেতে পারেন। এই সময়ে যদি হালকা গরম পানি খাওয়া যায়, তবে আরো ভালো। হজমে সাহায্য করে গরম পানি। শরীরও বেশি আর্দ্র থাকে এমন পানি খেলে।

অন্য সময়ও একেবারে ঢক ঢক করে পানি খেয়ে ফেললেও শরীরের জন্য ক্ষতি হতে পারে। পানি খেতে হবে ধীরে ধীরে। এক এক ঢোক নিয়ে সাবধানে খেতে হবে। ফলে কোনো বোতল থেকে সব পানি না খাওয়াই ভালো।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, খাওয়ার অন্তত আধা ঘণ্টা আগে ও আধা ঘণ্টা পরে এক গ্লাস করে পানি খেলে শরীর পানিসিক্ত থাকে, খাবার পরিপাক সহজ হয়।  

news24bd.tv/আলী  

;