বিএনপি’র লবিস্ট নিয়োগ রাষ্ট্রদ্রোহিতার সামিল : শেখ পরশ
বিএনপি’র লবিস্ট নিয়োগ রাষ্ট্রদ্রোহিতার সামিল : শেখ পরশ

শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে শেখ পরশ

বিএনপি’র লবিস্ট নিয়োগ রাষ্ট্রদ্রোহিতার সামিল : শেখ পরশ

অনলাইন ডেস্ক

যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ বলেছেন, বিএনপি’র অপরাজনীতির যেসব নিদর্শন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হচ্ছে তা আমাদের ভীষণভাবে ব্যথিত করেছে। দেশের টাকা পাচার করে বিদেশে লবিস্ট নিয়োগ করা খুবই নিকৃষ্টমানের রাজনীতি। সেই টাকা দেশের ও দেশের মানুষের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা বেআইনি এবং অপরাধ।  

আজ বুধবার বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তরের উদ্যোগে মহাখালির আইপিএইচ স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে অসহায় শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল। ঢাকা মহানগর যুবলীগ উত্তরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন বাবুলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মো. ইসমাইল হোসেনের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, যুবলীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য এনামুল হক খান, মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার, সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. হেলাল উদ্দিন, মো. সাইফুর রহমান সোহাগ, প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. সাদ্দাম হোসেন পাভেল, উপ-দপ্তর সম্পাদক মো. দেলোয়ার হোসেন শাহজাদা প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মো. শামছুল আলম অনিক, উপ-ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. আলতাফ হোসেন, উপ- তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এন আই আহমেদ সৈকত, উপ-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মো. রাশেদুল হাসান সুপ্ত, সহ-সম্পাদক আতাউর রহমান উজ্জল, মাইদুল ইসলাম, কার্যনির্বাহী সদস্য মানিক লাল ঘোষ, মোবাশ্বের হোসেন স্বরাজ, নূর হোসেন সৈকতসহ কেন্দ্রীয়, মহানগর ও বিভিন্ন ওয়ার্ড যুবলীগের নেতৃবৃন্দ।

শেখ ফজলে শামস পরশ আরো বলেন, আমি আশা করেছিলাম রাষ্ট্র-সরকার এবং রাজনৈতিক দলের মধ্যে পার্থক্য বুঝে বিএনপি। আমি ব্যথিত হলেও বিস্মিত হইনি কারণ এটা তাদের পুরোনো অভ্যাস। এর আগে খালেদা জিয়াও বিদেশিদের কাছে দেশের বিরুদ্ধে চিঠি লিখেছিলেন। রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে তাদের অভিযোগ থাকতে পারে কিন্তু দেশের বিরুদ্ধে এই গোপন ষড়যন্ত্র রাষ্ট্রদ্রোহীতার সামিল। এজন্য তাদেরকে এদেশের মানুষের কাছে জবাবদিহি করতে হবে।  

তিনি বিএনপির নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার পরিপূর্ণ সুস্বাস্থ্য কামনা করি। আমাদের বিশ্বাস ছিল যে তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন। কারণ বাংলাদেশের সবচেয়ে ব্যয়বহুল হাসপাতালেই তাঁর চিকিৎসা হচ্ছিল এবং তাঁর অসুস্থতার চিকিৎসা বাংলাদেশেই হওয়া সম্ভব বলে আমাদের বিশ্বাস ছিল। কিন্তু এই ব্যাপারটা নিয়ে করোনার সময় তাঁরা যে অযৌক্তিক আন্দোলন-সংগ্রাম করল এবং অসুস্থতা নিয়ে যে অপরাজনীতি করল, সেটার নিন্দা করার রুচি আমাদের নেই।  

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, এই করোনার সময় ইতোমধ্যেই প্রমাণ করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ শেখ হাসিনার কর্মী। শেখ হাসিনার উদ্দেশ্য হচ্ছে বাংলাদেশের খেটে খাওয়া মানুষ সুখে থাকবে, শান্তিতে থাকবে, পেট ভরে ভাত খাবে, রাতে শান্তিতে ঘুমাবে। কেউ যেন তাদের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে না পারে।

আরও পড়ুন


বিএনপি পরনির্ভর একটি রাজনৈতিক দল : ওবায়দুল কাদের

news24bd.tv এসএম