‌‘রাশিয়ার সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার’
‌‘রাশিয়ার সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার’

সংগৃহীত ছবি

টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

‌‘রাশিয়ার সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার’

নিজস্ব প্রতিবেদক

বর্তমান ​সরকার রাশিয়া সরকারের সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার।

তিনি বলেন, ২০১৮ সালের নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়নের ধারাবাহিকতায় ২০২১ সালের ১২ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ৫জি যুগে প্রবেশ করেছে। আমরা তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবল সংযোগ স্থাপনে ইতোমধ্যে কনসোর্টিয়ামের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেছি যা বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়েছে। আমাদের তৃতীয় অঙ্গীকার বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ২ নির্মাণ করা।

এই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে তার অভিযাত্রা আলোর মুখ দেখলো।  

বৃহস্পতিবার মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট -২ উৎক্ষেপণের জন্য রুশ ফেডারেশনের গ্লাভ কসমসের সাথে সহযোগিতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএসসিএল চেয়ারম্যাজন ড. শাহজাহান মাহমুদ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো: খলিলুর রহমান, বাংলাদেশে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেক্সেন্ডার ভিকেনতেভিচ মান্তিতস্কি এবং অনলাইনে রাশিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত কামরুল আহসান ও গ্লাভকসমস-এর মহাপরিচালক দিমিত্রি লস্কুতব উপস্থিত ছিলেন।  

টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন,টেলিকম প্রযুক্তির অপার সম্ভাবনা কাজে লাগাতে যুদ্ধের ধ্বংসস্তুপের ওপর দাঁড়িয়েও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দূরদৃষ্টি সম্পন্ন  বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণে ১৯৭৩ সালে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন (আইটিইউ) এবং ইউপিইউ এর সদস্য পদ লাভ করে। ১৯৭৫ সালের জুন মাসে বেতবুনিয়ায় উপগ্রহ ভূ-কেন্দ্র উদ্বোধনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু বহির্বিশ্বের সঙ্গে বাংলাদেশের আধুনিক টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার সূচনা করেন। তারই সুযোগ্য উত্তরসূরী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকল্প বাস্তবায়নের অংশ হিসাবে ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশকে ৫৭তম স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণকারী গর্বিত দেশ হিসেবে তুলে ধরেছেন। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৭ সালে মহাকাশে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের উদ্যোগ নেন।

বিএসসিএল এর  চেয়ারম্যান ও সিইও ড. শাহজাহান মাহমুদ এবং গ্লাভকসমসের মহাপরিচালক দিমিত্রি লস্কুতন নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সহযোগিতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন।
news24bd.tv/আলী