ই-ফান্ড ট্রান্সফার সিস্টেমকে শক্তিশালী করছে বাংলাদেশ ব্যাংক
ই-ফান্ড ট্রান্সফার সিস্টেমকে শক্তিশালী করছে বাংলাদেশ ব্যাংক

ই-ফান্ড ট্রান্সফার সিস্টেমকে শক্তিশালী করছে বাংলাদেশ ব্যাংক

বাবু কামরুজ্জামান

সব রকমের সরকারি লেনদেনে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে নিজস্ব ই-ফান্ড ট্রান্সফার সিস্টেমকে শক্তিশালী করছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কম সময়ে সাশ্রয়ীভাবে লেনদেন করতে বড় পরিসরের একটি ডেটা প্রসেসিং সফটওয়্যার তৈরির কাজ চলছে।  

যার ​মাধ্যমে ঘণ্টায় ৪৬ লাখ ইএফটি লেনদেন সম্ভব হবে বলে মনে করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র বলছেন, সরকারি ব্যয় ব্যবস্থাপনা এবং আন্তঃব্যাংক চেক লেনদেনের ক্ষেত্রে এই সফটওয়্যার যুগান্তকারী পরিবর্তন নিয়ে আসবে।

২০১৫ সালে চালু হওয়া তহবিল স্থানান্তরে ইলেকট্রনিক সিস্টেম ইএফটিএন চালু হয়। যার মাধ্যমে সীমিত পরিসরে সরকারি কর্মচারীদের বেতন দেওয়া শুরু হয়।

এর আগে ম্যানুয়াল ব্যবস্থায় বেতন পরিশোধে তিন থেকে পাঁচদিন পর্যন্ত সময় লাগত।

বর্তমানে গেট পিএইচ সফটওয়্যারের মাধ্যমে প্রতি ঘণ্টায় ছয় লাখ লেনদেন নিষ্পত্তি করতে সক্ষম বাংলাদেশ ব্যাংক।

তবে প্রস্তুতি চলছে এর আধুনিক সংস্করণ নিকাশের। যার মাধ্যমে ঘণ্টায় ৪৬ লাখের বেশি লেনদেন নিষ্পত্তি করতে নতুন মেগা সফটওয়্যার নিয়ে কাজ করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

যা সরকারি ব্যয় ব্যবস্থাপনায় বড় পরিবর্তন আনবে বলে মনে করছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা সমসময়ই আরও ডিজিটাল ব্যবস্থাপনায় যেতে চাই। নতুন সফটওয়্যারের মাধ্যমে লেনদেন বাস্তবায়িত হলে স্বল্প সময়েই জন তহবিল বিতরণ করা সম্ভব হবে, যার ফলে রাতারাতি জনশক্তির প্রয়োজন কমবে। এর ফলে তহবিল বিতরণও আগের চেয়ে আরও সাশ্রয়ী হবে। ’

সরকারের লক্ষ্য সকল সরকারি কর্মচারীর বেতন, কেনাকাটার ব্যয়, সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা, উন্নয়ন প্রকল্প সংশ্লিষ্ট অর্থায়ন এবং এমপিওভুক্ত স্কুল-কলেজের শিক্ষক ও কর্মচারীর বেতন ডিজিটালি বিতরণ করা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাবে গত অর্থবছরে বিদ্যমান সফটওয়্যারের মাধ্যমে ২ কোটি ৬৭ লাখ সুবিধাভোগীকে ৯০ হাজার কোটি টাকার বেশি বিতরণ করা হয়েছে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বর নাগাদ সরকারি তহবিল ব্যবস্থাপনায় যোগ হতে যাচ্ছে নিকাশ কার্যক্রম।

সরকারি তহবিল ব্যবস্থাপনায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডিজিটাল সফটওয়্যার চালুর এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে পরিকল্পনা মন্ত্রী।

২০২০-২১ অর্থবছরে, সরকার ১৬টি সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় বয়স্ক, মুক্তিযোদ্ধা, বিধবা, প্রাপ্তবয়স্ক এবং প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য ভাতা প্রদানের আওতায় ১৩ হাজার ১২৬ কোটি টাকা বিতরণ করেছে ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার এর মাধ্যমে। যার সবকিছুই সম্পন্ন হবে নিকাশের আওতায়।

news24bd.tv তৌহিদ

;