নেতৃত্বে পরিবর্তনের প্রয়োজন আছে: দেলোয়ার জাহান ঝন্টু
নেতৃত্বে পরিবর্তনের প্রয়োজন আছে: দেলোয়ার জাহান ঝন্টু

সংগৃহীত ছবি

নেতৃত্বে পরিবর্তনের প্রয়োজন আছে: দেলোয়ার জাহান ঝন্টু

ফাতেমা কাউসার

বিএফডিসি আছে কিন্তু নেই সিনেমার ব্যস্ততা। হলের সংখ্যাও এখন দুই অংকের ঘরে। বছর শেষে মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমার খাতায় দেখা মিলেনা ব্যবসা সফল চলচ্চিত্রের নাম। এই যখন বাস্তবতা তখন শিল্পী সিমিতির নির্বাচন ইস্যুতে তীব্র সমালোচনার মুখে সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি! ব্যস্ত তারকারাও চান সবার মিলিত প্রচেষ্টায় ফিরুক বাংলা সিনেমার সোনালী অতীত।

সিনেমার চিত্রনাট্যকেও হার মানাচ্ছে শিল্পী সমিতির নির্বাচন। একের পর এক ঘটনা নিচ্ছে নিত্য নতুন মোড়।

বিগত ১৬ বারের নির্বাচনে হয়নি এমন কাদা ছোঁড়াছুড়ি যা হয়েছে ১৭তম বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে। ভোট প্রদানের আনুষ্ঠানিকতা একদিন হলেও ফলাফল বদলাচ্ছে প্রতিদিন।

কে আসছেন সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে? কিইবা আছে এ চেয়ারের পেছনে? কি হতে যাচ্ছে শিল্পী সমিতির ভবিষ্যৎ? এমন প্রশ্ন এখন ঘুরপাক খাচ্ছে সিনেমাপাড়ায়।

এফডিসি নির্বাচনে নেতৃত্বে পরিবর্তনের প্রয়োজন আছে বলে মনে করেন চলচিত্র নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু।

চলচ্চিত্র উন্নয়নের জন্য যে এফডিসি, সেখানে নেই চলচ্চিত্রের ব্যস্ততা। অনেকের প্রশ্ন চলচ্চিত্রই যদি না থাকে, এত সমিতি দিয়ে কী হবে?

আরও পড়ুন:


হিজাব নিষিদ্ধ, কর্ণাটকে ৩ দিনের জন্য স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা


ব্যস্ত তারকারা বলছেন দ্বন্দ্ব নয়, সবার মিলিত প্রচেষ্টায় ফিরে আসুক বাংলা সিনেমার সোনালি অতীত।  সমিতির খবরে নয়, চলচ্চিত্র পাড়া মুখর থাকুক নিত্যনতুন ছবির খবরে।

নায়িকা অপু বিশ্বাস বলেন, 'এফডিসি চার দেয়ালের মাঝে। আমরা চার দেয়ালের মাঝে থাকি, বিদ্ধেষ ভুলে সবাই একসাথে আমরা থাকতে চাই। ' 

এদিকে, নায়িকা বুবলি বলেন, 'আমরা সবাই যেন মিলেমিশে থাকি এবং মিলেমিশে যেন চলচিত্রের জন্য কাজ করি। ' 

news24bd.tv রিমু