‘ক্রেনবিহীন জাহাজে’ পণ্য বোঝাই-খালাসে রেকর্ড 
‘ক্রেনবিহীন জাহাজে’ পণ্য বোঝাই-খালাসে রেকর্ড 

সংগৃহীত ছবি

মোংলা বন্দর জেটি

‘ক্রেনবিহীন জাহাজে’ পণ্য বোঝাই-খালাসে রেকর্ড 

বাগেরহাট প্রতিনিধি 

মোংলা বন্দর প্রতিষ্ঠার ৭১ বছরের মধ্যে এই প্রথম কোন নিজস্ব ক্রেনবিহীন (গিয়ারলেস) জাহাজ বন্দর জেটিতে নোঙ্গর করে পন্য বোঝাই ও খালাসে রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। ৪৮৬ টিউজ কন্টেইনার নিয়ে ১৭২ মিটার দৈর্ঘ ও ৬ দশমিক ৯ মিটার গভীরতার ওশান ট্রেড লিমিটেডের পানামা পতাকাবাহী গিয়ারলেস এমভি ফিলোটিমো জাহাজটি বন্দরের ৯ নম্বর জেটিতে নোঙ্গর করার পর মাত্র ৩৯ ঘন্টায় মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের নিজস্ব ২টি মাল্টিপারপাস ক্রেন ও ১ টি মোবাইল হারবার ক্রেন দিয়ে ২৬৩ টি পণ্যবাহী কন্টেইনার জাহাজ থেকে খালাস ও ৩৪৪ টি কন্টেইনার জাহাজে বোঝাই করে রেকর্ড সৃষ্টি করেছে।  

বিদেশী এই জাহাজটি পন্য বোঝাই করে আজ মোংলা বন্দর ত্যাগ করেছে। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের বোর্ড ও জনসংযোগ বিভাগের উপ সচিব মো. মাকরুজ্জামান বৃহস্পতিবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা জানান, বন্দরের নিজস্ব সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য সম্প্রতি ২টি মাল্টিপারপাস ক্রেন ও ৪টি মোবাইল হারবার ক্রেন বন্দরে সংযোজন করা হয়েছে। এই অত্যাধুনিক মাল্টিপারপাস ও মোবাইল হারবার ক্রেনের মাধ্যমেই গিয়ারলেস জাহাজটি থেকে আমদানী ও রপ্তানী পণ্য বোঝাই-খালাস সম্ভব হয়েছে। এরআগে মোংলা বন্দর প্রতিষ্ঠার ৭১ বছরের মধ্যে শুধুমাত্র নিজস্ব ক্রেন সংযুক্ত কন্টেইনারবহনকারী জাহাজের আগমন ঘটতো এ বন্দরে।  

এখন থেকে গিয়ারলেস জাহাজ আসলেও তার যথাযথা সেবা প্রদানে বন্দর কর্তৃপক্ষ সম্পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছে।

মাত্র ৩৯ ঘন্টায় গিয়ারলেস জাহাজটি থেকে সকল কন্টেইনার ওঠানো ও নামানো হয়েছে, প্রতি ঘন্টায় ১৫টি কন্টেইনার ওঠানামানোতেও রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। কারণ এমন জাহাজ থেকে আগে সমপরিমাণ পণ্য ওঠানামানোর জন্য সাধারণত তিন দিন সময় লাগতো। এখন ২টি মাল্টিপারপাস ক্রেন ও ৪টি মোবাইল হারবার ক্রেন বন্দরে সংযোজিত হওয়ায় নিজস্ব ক্রেনবিহীনসহ অন্যসব জাহাজের পন্য ওঠানামার সময় একদিনও বেশী কমে এসছে। এতে করে  বন্দর জেটিতে নোঙ্গর করে পন্য বোঝাই ও খালাসে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ রেকর্ড সৃষ্টি করছে।  

news24bd.tv/আলী