মিথ্যাচার ছাড়া বিএনপির কোনো রাজনৈতিক ভিত্তি নেই : ওবায়দুল কাদের
মিথ্যাচার ছাড়া বিএনপির কোনো রাজনৈতিক ভিত্তি নেই : ওবায়দুল কাদের

ফাইল ছবি

মিথ্যাচার ছাড়া বিএনপির কোনো রাজনৈতিক ভিত্তি নেই : ওবায়দুল কাদের

অনলাইন ডেস্ক

নির্বাচন কমিশন সার্চ কমিটি নিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্যনির্লজ্জ মিথ্যাচারআখ্যায়িত করে তাকে একহাত নিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সার্চ কমিটি নিয়ে বিএনপির সাম্প্রতিক বক্তব্যের জেরে আজ বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এমন মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

বিবৃতিতে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, স্বাধীন নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনে কাজ করে যাচ্ছে সার্চ কমিটি। তাদের অনুসন্ধান প্রক্রিয়া শেষ না হওয়ার আগেই বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কমিটি নিয়ে দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য করছেন।

দলের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বডুয়া স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে সার্চ কমিটি নির্বাচন কমিশনের প্রক্রিয়া সম্পর্কে ওবায়দুল কাদের বলেন, রাষ্ট্রপতির সঙ্গে রাজনৈতিক দলগুলোর সংলাপের পর আইনি প্রক্রিয়ায় সার্চ কমিটি গঠন তাদের সুপারিশের ভিত্তিতে নতুন কমিশন গঠনের কাজ হচ্ছে।

তিনি বলেন, ষড়যন্ত্র মিথ্যাচার ছাড়া বিএনপির কোনো রাজনৈতিক ভিত্তি নেই। হত্যা, ক্যু ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিতবিএনপি তার রাজনৈতিক নীতির উত্তরাধিকার পরিত্যাগ করতে পারেনি। বরং অপরাজনীতির হাতিয়ারগুলোকে শাণিত করে গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে অপকৌশল গ্রহণ করছে এবং জাতিকে বিভ্রান্ত করে চলেছে।

তারই অংশ হিসেবে মির্জা ফখরুল শিষ্টাচার বহির্ভূতভাবে সার্চ কমিটি নিয়ে মন্তব্য করছেন।

তিনি আরও বলেন, আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় ২০০৫ সালে বিচারপতি এম আজিজকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিল বিএনপি। সুতরাং যারা অগণতান্ত্রিক ওই আচরণ করেছিল তাদের কাছে বর্তমানের এই গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া তামাশাই মনে হতে পারে।

বিএনপির শাসনামল সম্পর্কে বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, গণতন্ত্রের নিখাদ শত্রু বিএনপি যতই পোশাকি গণতন্ত্রের আবরণে ছদ্মবেশ ধারণ করে নিজেদের লুকানোর চেষ্টা করুক না কেন, জাতির কাছে তাদের স্বরূপ অনেক আগেই উন্মোচিত।

বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যেকোনো মূল্যে আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকে সমুন্নত রাখবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন ওবায়দুল কাদের।

news24bd.tv/আলী