আগে থেকেই আমি গন্ধ পাই এবং যা বলি তা হয় :  শামীম ওসমান
আগে থেকেই আমি গন্ধ পাই এবং যা বলি তা হয় :  শামীম ওসমান

সংগৃহীত ছবি

আগে থেকেই আমি গন্ধ পাই এবং যা বলি তা হয় :  শামীম ওসমান

অনলাইন ডেস্ক

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, চারিদিকে গন্ধ পাচ্ছি। আগের থেকেই আমি গন্ধ পাই এবং যা বলি তা হয়।

তিনি বলেন, জেলা প্রশাসক সাহেব, আপনারা মনে করবেন এটা আপনাদের এলাকা। এমনভাবে কাজ করবেন যেন আপনি চলে গেলে চোখে পানি আসে।

ইচ্ছে করলে কাগজে সই করে চলে যেতে পারেন অথবা আমাকে কাজে লাগাতে পারেন। আপনি এখানে কাজের জন্য এসেছেন। আপনার টিমটাও খুব ভাল। এক দুইমাস পরে হয়ত আমাকে পাবেন না।
আমি রাস্তায় থাকব, আমরা রাস্তায় থাকার লোক।

শনিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কালিরবাজারে জেলা সরকারি গ্রন্থাগারে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

ছোট বাচ্চাদের উদ্দেশে শামীম ওসমান বলেন, একটা মানুষ কাজ করলেই প্রশান্তি হয় না। এখানে জেলা প্রশাসন আছেন। তাদের ছাড়া আমি পারব না। সত্য লেখার দায়িত্ব সাংবাদিকদের। জনগণের ভোটে পাস করেছি, তাই কাজ করা আমাদের দায়িত্ব। নারায়ণগঞ্জের ৯০ শতাংশ কাজ আমাদের হাত দিয়ে হয়েছে। তোলারাম কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয় করার জন্য পদত্যাগ করেছিলাম। ডিএনডির জন্য সংসদে মন্ত্রীকে বলেছিলাম আমি পদত্যাগ করব, না হয় আপনি পদত্যাগ করবেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একান্তে কিছু জিনিস চেয়েছিলাম। তখন তিনি বলেন, তুমি কী চাও? আমি ডিএনডি, লিংক রোডসহ কয়েকটি প্রজেক্ট চেয়ছি এবং তিনি দিয়েছেন। তখন তিনি বললেন এটুকুই তোমার চাওয়া। এতে তোমার লাভ কী? তখন বললাম মৃত্যুর পরে যেন মানুষ আমার জন্য কাঁদে।

শামীম ওসমান বলেন, নারায়ণগঞ্জে একটা নিষিদ্ধ পল্লী ছিল, সেখানে নারীদের ইজ্জত বিক্রি হত। নারায়ণগঞ্জে পুলিশ তখন পেত ৪৫ টাকা। ৫০টা মদের দোকান ছিল। ১৪ থেকে ১৫ হাজার লোক ছিল। আমি কাবা শরীফ ছুঁয়ে প্রতিজ্ঞা করেছিলাম, আমি আপাকে বললাম আমি এই শপথ করেছি। তিনি বললেন, তুমি করো। আমি বললাম বাধা আসবে, তিনি বললেন বাধা আসবেই, তখন সকলে মিলে সাড়ে তিন কোটি টাকা দিল। আমার বড় ভাই সেলিম ওসমান দিলেন দেড় কোটি টাকা। সেই টাকা দিয়ে তাদের পুনর্বাসিত করেছি। বন্ধুবান্ধাবরা তখন বলত ওইখানের কী অবস্থা, তখন মাথা নিঁচু হয়ে গেছে। ওই শক্তি অনেক বড় শক্তি ছিল। পতিতালয় উচ্ছেদ, গোলাম আজমকে নারায়ণগঞ্জে নিষিদ্ধ করা এবং যে রাতে ক্যু হবার কথা ছিল সেদিন নির্দেশিত হয়ে লং মার্চ ঠেকানো এই তিনটি কারণে আমি টার্গেট হয়েছি। তারা নেই কিন্তু তাদের তাবেদাররা এখনও আমাকে টার্গেট করছে।
news24bd.tv/আলী