মস্কোর বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক নিষেধাজ্ঞার হুমকি বাইডেনের

মস্কোর বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক নিষেধাজ্ঞার হুমকি বাইডেনের

আসমা ‍তুলি

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র- শুক্রবার এমন মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। সেইসঙ্গে মস্কোর বিরুদ্ধে ব্যাপক অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক নিষেধাজ্ঞার হুমকি পুনর্ব্যক্ত করেন তিনি। এমনকি রাশিয়া হামলার সম্ভাব্য রুট নিয়েও হিসাব কষছে তাঁর প্রশাসন। তবে বরাবরের মতো হামলার পরিকল্পনার কথা নাকচ করেছে পুতিন প্রশাসন।

 

নিজের অবস্থান থেকে এখন পর্যন্ত পিছিয়ে যায়নি রাশিয়া। বরং এখনো ইউক্রেন সীমান্ত ৪০ শতাংশ রুশ সেনা দিয়ে ঘেরা। শুক্রবার এমন মন্তব্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের। বাইডেনের দাবি , ইউক্রেন সীমান্তে প্রায় ১ লক্ষ ৯০ হাজার সেনা মোতায়েন রেখেছে রাশিয়া । পূর্ব ইউক্রেনে চলা বিচ্ছিনতাবাদীদের কার্যকলাপই মস্কোর  হামলার প্রেক্ষাপট হবে বলে আশঙ্কা তাঁর।

 এই মুহুর্তে আমি নিশ্চিত যে প্রেসিডেন্ট পুতিন ইউক্রেন দখলের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন । এ নিয়ে আমাদের কাছে প্রমাণও আছে । শীঘ্রই এই হামলা শুরু হতে পারে।

রাশিয়ার সম্ভাব্য হামলা মোকাবিলায় প্রস্তুতি আরো জোরদার করেছে পশ্চিমারা।  যদি এই হামলা হয়,  সেটা কোন কোন রুটে হবে তা নিয়েও  হিসাব-নিকাশ সেরেছে  ওয়াশিংটন। সেইসঙ্গে রাশিয়ার ওপর নানান নিষেধাজ্ঞার ছক কষা  তো রয়েছেই।

এখানেই শেষ নয়, ইউক্রেন সংকট নিয়ে জার্মানির মিউনিখে ইউরোপীয় দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরদের সঙ্গে শুক্রবার বৈঠক করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টোনি ব্লিঙ্কেন। নানা তৎপরতা চালাচ্ছেন মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রীও।

তবে এমন পরিস্থিতির মধ্যেও  হামলার আশংকা অস্বীকার করেছে রাশিয়া। উল্টো মস্কোর  দাবি, পশ্চিমারা দায়িত্বজ্ঞানহীন ভয়-প্রদর্শনের অভিযোগ আনছে পুতিন প্রশাসনের বিরুদ্ধে।

news24bd.tv/আলী