এক ছেলের জিম্মায় বন্দী সাবেক এমপি ভরসা, ৯ সন্তানের রিট
এক ছেলের জিম্মায় বন্দী সাবেক এমপি ভরসা, ৯ সন্তানের রিট

ফাইল ছবি

এক ছেলের জিম্মায় বন্দী সাবেক এমপি ভরসা, ৯ সন্তানের রিট

জাতীয় পার্টির সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রংপুর থেকে নির্বাচিত জাতীয় পার্টির নেতা করিম উদ্দিন ভরসা নিম্ন আদালতের একটি মামলার জিম্মায় তারই এক সন্তানের হেফাজতে বন্দী! এমন অভিযোগে তার অন্য ৯ সন্তানের করা রিটের প্রাথমিক শুনানিতে তাদের বাবা ভরসাকে আগামী ৬ মার্চ হাজিরের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

রোববার (২০ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

রুলে ছেলে মো. সাইফুল উদ্দিন ভরসার (শিমুলের) হেফাজতে বন্দী করিম উদ্দিন ভরসাকে আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূতভাবে আটকে রাখা হয়নি তা নিশ্চিত করতে আদালতের সামনে হাজির করতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না।  একই সঙ্গে করিম উদ্দিন ভরসাকে বাকি ৯ সন্তানের (আবেদনকারী) যৌথ নিরাপদ হেফাজতে দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, রংপুর মহানগর পুলিশের কমিশনার, রংপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি), করিম উদ্দিন ভরসার ছেলে মো. সাইফুল উদ্দিন ভরসা শিমুল, ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার ও গুলশান থানার ওসিকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট আফরোজা ফিরোজ মিতা, ব্যারিস্টার কামরুন মাহমুদ দীপা, ব্যারিস্টার সাবরিনা জেরিন ও ব্যারিস্টার এম. আব্দুল কাইয়ুম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার।

আফরোজা ফিরোজ মিতা সংবাদ মাধ্যমকে জানান, হাইকোর্টের কাছে আমরা ভিজিটিং রাইট’ চেয়েছি। যাতে তাকে সব সময় দেখতে পারি। তার সাথে যেন একটা যোগাযোগ থাকে। মহামান্য হাইকোর্টে রিট শুনানির পর আদেশ দিয়েছেন তাকে যেন আগামী ৬ কোর্টে হাজির করা হয়।

তিনি জানান, ষোল ভাই-বোনের মধ্যে এক ভাই করিম উদ্দিন ভরসাকে পারিবারিক এক মামলায় জিম্মায় নিয়েছিল। এরপর বাকি ভাই-বোনদের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়। তিনি কেমন আছেন বা আদৌ বেঁচে আছেন কিনা-তাও বাকীরা জানতে পারছিলেন না। এজন্যই তারা রিট করেছেন।

উল্লেখ্য, করিম উদ্দিন ভরসা জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি ছিলেন এবং ১৯৯১ সালের নির্বাচনে রংপুর-১ (গঙ্গাচড়া) আসন, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে রংপুর-৪ (কাউনিয়া-পীরগাছা) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

news24bd/এআর-কাবুল

;