যৌনকর্মীদের সহায়তায় রক্ষা পেল নারী, আটক পাচারকারী
যৌনকর্মীদের সহায়তায় রক্ষা পেল নারী, আটক পাচারকারী

সংগৃহীত ছবি

যৌনকর্মীদের সহায়তায় রক্ষা পেল নারী, আটক পাচারকারী

রাজবাড়ী প্রতিনিধি: 

দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে বিক্রি করার সময় এক নারীকে উদ্ধার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ। এসময় পুলিশের হাতে আটক হয় নারী পাচারকারী দলের এক সদস্য রফিক সরদার (৩৪)। এ সময় কৌশলে পালিয়ে যায় মজিবর কসাই নামের আরেক পাচারকারী।  

আটককৃত রফিক দৌলতদিয়া তাহের কাজীর পাড়ার উম্বার সরদারের ছেলে।

সে দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর বাড়ীওয়ালা।  মজিবর কসাই রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার নাদুরিয়া গ্রামের বাসিন্দা।  

এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মারুফা আক্তার বাদী হয়ে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনের ৬ (২)/১১ ধারায় মামলা করেন। মামলা নং-৩০, ২২ ফেব্রুয়ারি।

 

পুলিশ ও স্থানীয়দের সুত্রে জানা যায়, পাচারকারী দলের সদস্য মজিবর কসাই দীর্ঘদিন যাবৎ দৌলত দিয়া এলাকায় গরুর ব্যবসা করতেন। বাদীর নানা দুলুন খুনকারও গরুর ব্যবসা করেন। সেই সুবাদে দুইজনের পরিচয়। নানা দুলুন খুনকারের পূর্ব পরিচয়ের সুবাদে ভাল বেতনের চাকরি দেওয়ার কথা বলে দৌলত দিয়া যৌনপল্লীতে রফিক বাড়ীওয়ালার কাছে বিক্রি করে দেন। পাচারকৃত নারী চিৎকার করলে স্থানীয়রা এগিয়ে আসে। এসময় যৌনকর্মীদের নিজস্ব সংগঠন মুক্তি মহিলা সমিতির কর্মীরা এগিয়ে এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে এবং পাচারকারী দলের সদস্য রফিককে আটক করে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় সংবাদ দেয়।  

গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার জানান, মুক্তি মহিলা সমিতির কর্মীদের সহযোগিতায় পাচারকৃত নারীকে উদ্ধার ও আসামী রফিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনের ৬ (২)/১১ ধারায় মামলা হয়েছে।  

news24bd.tv/আলী