দেশ রক্ষায় ব্রিজসহ নিজেকে উড়িয়ে দিলো ইউক্রেনীয় সৈনিক
দেশ রক্ষায় ব্রিজসহ নিজেকে উড়িয়ে দিলো ইউক্রেনীয় সৈনিক

ইউক্রেনীয় সেনা ভিতালি স্কাকুন ভোলোদিমিরোভিচ

দেশ রক্ষায় ব্রিজসহ নিজেকে উড়িয়ে দিলো ইউক্রেনীয় সৈনিক

 

অনলাইন ডেস্ক

ইউক্রেনের রুশ আগ্রাসনের তৃতীয় দিন চলছে। এদিন দেশটির রাজধানী কিয়েভে প্রবল প্রতিরোধের মুখোমুখি হতে হয়েছে রুশ সেনাবাহিনীকে। দুই দেশের সেনাদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ চলছে। ইউক্রেনে নৌ-আকাশ ও স্থলপথে আক্রমণ চালাচ্ছে রাশিয়া।

 

অন্যদিকে নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে সবটুকু দিয়ে লড়ে যাচ্ছে ইউক্রেন। এই যাত্রায় এক ইউক্রেনীয় সেনা অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

ইয়ন নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, শরীরে মাইন বেঁধে নিজেকে উড়িয়ে দিয়ে রুশ ট্যাঙ্কের অগ্রযাত্রা থামিয়ে দিয়েছেন এক ইউক্রেনীয় সৈনিক। তিনি মাইন বিস্ফোরণ করে ব্রিজসহ নিজেকে উড়িয়ে দেন। ব্রিজসহ নিজেকে উড়িয়ে দেয়া ওই ইউক্রেনীয় সৈনিকের নাম ভিতালি স্কাকুন ভোলোদিমিরোভিচ। তিনি পদমর্যাদায় ইউক্রেনের নৌ-সেনার ব্যাটেলিয়ন ইঞ্জিনিয়ার।

ইউক্রেনের মূল ভূখণ্ডে প্রবেশের জন্য মূলরাস্তা ক্রাইমিয়া থেকে খেরসন প্রদেশের হয়ে বিস্তৃত। ওই রাস্তার ওপর হেনিচেস্ক সেতু। রাশিয়ার সাজোয়া গাড়ি ও ট্যাঙ্ক ওই পথ দিয়েই মূল ইউক্রেনে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করছিল। কিন্তু, বাধা হয়ে দাঁড়ান ভিতালি স্কাকুন ভলোদিমিরোভিচ।

যখন দেখলেন, ইউক্রেনে ঢুকে পড়তে যাচ্ছে রুশ ট্যাঙ্কবহর এবং এগিয়ে যাচ্ছে সেতু লক্ষ্য করে। তখন গায়ে মাইন বেঁধে ব্রিজসহ নিজেকেই উড়িয়ে দিলেন। মুহূর্তে ধসে পড়ল চার লেনের সেতু। থেমে যায় রাশিয়ার ট্যাঙ্কগুলো।  

তিনি নিজের প্রাণ বাঁচাতে দেরিতে মাইন বিস্ফোরণ করলে ঘটনা অন্যদিকে মোড় নিতো। কারণ, তখন রাশিয়ার ট্যাঙ্কগুলো ব্রিজ পার হয়ে যেত। নিজের প্রাণ দিয়ে রুশ ট্যাঙ্ক বাহিনীকে রুখে দেয়ার জন্য যুদ্ধ বিধ্বস্ত ইউক্রেনে এখন জাতীয় বীরের মর্যাদা পাচ্ছেন ভিতালি।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র বলছে ,স্থানীয় সময় শনিবার সকাল পর্যন্ত রুশ সেনাবাহিনী ইউক্রেনের বিভিন্ন অঞ্চলে অন্তত আড়াই শতাধিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। রুশ বাহিনী নিক্ষেপিত ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর বেশির ভাগই স্বল্প পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ।

সবশেষ বিবিসি ইউক্রেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, রুশ হামলার পর দেশটিতে অন্তত ১৯৮ জন নিহত হয়েছেন এবং অন্তত আরও ১ হাজারেরও অধিক মানুষ মারাত্মকভাবে আহত হয়েছেন। এবং যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর বিগত ৪৮ ঘণ্টায় ১ লাখেরও অধিক মানুষ ইউক্রেন ত্যাগ করেছেন।  
news24bd.tv/আলী