তিন দশক পর দুভাগে বিভক্ত বিশ্ব (ভিডিও)

তিন দশক পর দুভাগে বিভক্ত বিশ্ব (ভিডিও)

মাসুদ রানা

ইউক্রেনের আকাশে বারুদের গন্ধ। কিয়েভের বিরুদ্ধে মস্কোর যুদ্ধ ঘোষণায় স্নায়ুযুদ্ধের তিন দশক পর ফের দুভাগে বিভক্ত বিশ্ব। এই পরিস্থিতিকে অনেকেই তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধর আগ মুহূর্ত বলে ব্যাখ্যা করছেন। এরিমাঝে ইউক্রেনকে সমর্থন দিচ্ছে ৮০টি দেশ।

এদিকে, প্রকাশ্যে মস্কোর পশে দাঁড়িয়েছে বেইজিং। নিরব দর্শকরাও মাথা চাড়া দিতে শুরু করেছে।  

ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের পর থেকেই তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের শঙ্কা মাথাচাড়া দিচ্ছিল। এবার ভেবে চিন্তে পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্রসহ  ইউক্রেনের প্রধান মিত্র ইউরোপ।

আরেকটা বিশ্বযুদ্ধ ঠেকাতে অস্ত্র রপ্তানি করবে না এ সিদ্ধান্ত থেকেও সরে আসা জার্মানি, কিয়েভকে দিচ্ছে অস্ত্র সহায়তা।  যুদ্ধাস্ত্র পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছে ফ্রান্স,  নেদারল্যান্ডসহ মিত্ররা।

এরিমাঝে ৮০ টি দেশ সমর্থন করছে ইউক্রেনকে। ন্যাটোর অন্তর্ভুক্ত ইউরোপিয় সব দেশগুলোকে পাশে পাচ্ছে ইউক্রেন। বেলজিয়াম, কানাডা, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, আইসল্যান্ড, ইতালি, লুক্সেমবার্গ, নেদারল্যান্ড, নরওয়ে, পর্তুগাল, ব্রিটেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন পাচ্ছে  ইউক্রেন। এছাড়া জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া এবং অস্ট্রেলিয়াও ইউক্রেনকে সমর্থন করছে।

আগেই চীন জানিয়ে দিয়েছে যে এই লড়াইয়ে রাশিয়ার পাশে রয়েছে তারা। অনায়াসে মার্কিন শত্রু কিউবার সমর্থন পাবে রাশিয়া। এদিকে পারমাণবিক যুদ্ধ শুরু হলে উত্তর কোরিয়ারও সমর্থন পাবে রাশিয়া।  

এছাড়া একসময়ে সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ থাকা আর্মেনিয়া, কাজাখস্তান, কর্গিস্তান, তাজিকিস্তান এবং বেলারুসের সমর্থন পাচ্ছেন ভ্লাদিমির পুতিন। আফগানিস্তানের তালিবান শাসন কায়েম হওয়ার পর সুরক্ষার স্বার্থে পশ্চিম এশিয়ার দেশগুলো রাশিয়াকেই সমর্থন করবে। আজারবাইজান এবং মধ্য প্রাচ্যের ইরানকেও পাশে পাবে মস্কো।

এদিকে নিরব ভূমিকায় রয়েছে অনেকে। ভারত এখনও কোনও পক্ষ নেয়নি।  নিরব দর্শক হলেও ইউক্রেনে হামলার জন্য রাশিয়ার নিন্দা জানাতে অসম্মতি জানিয়েছে ব্রাজিলও।    
news24bd.tv/আলী