মানুষের সব গুণ আল্লাহর তুলনায় অপূর্ণ
মানুষের সব গুণ আল্লাহর তুলনায় অপূর্ণ

প্রতীকী ছবি

মানুষের সব গুণ আল্লাহর তুলনায় অপূর্ণ

অনলাইন ডেস্ক

আল্লাহর গুণবাচক নাম ৯৯টিতে সীমাবদ্ধ নয়। কোরআন ও হাদিসে আল্লাহর যে গুণাবলি উল্লেখ করা হয়েছে তার কোনো কোনোটি মানুষের ভেতর পাওয়া যায়; এমনকি অন্য প্রাণীর ভেতরও তার বহিঃপ্রকাশ দেখা যায়। যেমন-দয়াশীল হওয়া, ক্ষমা করা, রাগান্বিত হওয়া, সুবিচার করা, প্রতিদান দেওয়া ইত্যাদি।

মুসলিম ধর্মতাত্ত্বিকরা বলেন, আল্লাহ মানুষের ভেতর তাঁর কিছু গুণাবলির বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছেন, যেন মানুষ সে গুণগুলোর মর্ম উপলব্ধি করতে পারে।

তবে আল্লাহর গুণাবলি কোনোভাবেই সৃষ্টির গুণাবলির সঙ্গে তুল্য নয়। আল্লাহর গুণাবলি সব বিবেচনায় পূর্ণ। এতটা পূর্ণ, যা মানুষের কল্পনার অতীত। অন্যদিকে মানুষের সব গুণ আল্লাহর তুলনায় অপূর্ণ।
আল্লাহর গুণাবলি সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘কোনো কিছুই তাঁর মতো নয়। ’ (সুরা : আশ-শুরা, আয়াত : ১১)

অন্য আয়াতে ইরশাদ হয়েছে, ‘কেউ তাঁর সমকক্ষ নয়। ’(সুরা : ইখলাস, আয়াত : ৪)

আর মানুষের গুণাবলি সম্পর্কে ইরশাদ হয়েছে, ‘মানুষকে দুর্বল করে সৃষ্টি করা হয়েছে। ’ (সুরা : নিসা, আয়াত : ২৮)

শুধু মানুষ নয়, আল্লাহর কোনো সৃষ্টিই তাঁর সমকক্ষ নয়। এ জন্য আল্লাহর নির্দেশ হলো—‘তোমরা কোনো কিছুকে আল্লাহর সমকক্ষ বানিয়ো না। ’(সুরা : বাকারা, আয়াত : ২২)

আল্লামা ইবনু আবিল ইজ্জ (রহ.) লেখেন, ‘কোনো কিছু আল্লাহর মতো নয়-এর দ্বারা মানুষের গুণাবলি নাকচ করা যেমন উদ্দেশ্য নয়, তেমন তার জন্য গুণাবলির সর্বোচ্চ স্তর প্রমাণ করাও উদ্দেশ্য নয়; বরং আলেমদের উদ্দেশ্য হলো নাম, গুণাবলি ও কাজের ক্ষেত্রে স্রষ্টার সঙ্গে সৃষ্টির সাদৃশ্য নাকচ করা। ইমাম আবু হানিফা (রহ.) যেমন লিখেছেন, আল্লাহ জানেন তবে আমাদের মতো নয়, আল্লাহ সামর্থ্য রাখেন কিন্তু আমাদের মতো নয়, আল্লাহ দেখেন কিন্তু আমাদের মতো নয়। ’ (শরহুত ত্বহাবিয়্যাহ : ১/৮৭) আল-মাউসুয়াতুল আকাদিয়া

news24bd.tv রিমু