স্বর্ণ ব্যবসায় নতুন দিগন্ত উন্মোচন করবে জুয়েলারি এক্সপো

স্বর্ণ ব্যবসায় নতুন দিগন্ত উন্মোচন করবে জুয়েলারি এক্সপো

হাসান ওয়ালী

১৭ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ জুয়েলারি এক্সপো-২০২২। প্রথবারের মতো এ আয়োজন করছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)।

বুধবার রাজধানীর বসুন্ধরা সিটিতে বাজুসের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয় ৷

বিশ্বের দরবারে সমাদৃত হবে দেশীয় কারিগরদের ডিজাইনের অলংকার। বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) এর আয়োজনে তিনদিনের এই এক্সপোতে সমাগম হবে দুই লাখের বেশি দর্শনার্থী।

আয়োজকরা জানালেন, ৭০টি স্টলে থাকবে নিত্যনতুন ডিজাইনের অলংকার।

দেশের বাইরের অনেক ক্রেতা ও দর্শনার্থীরাও আসবেন জুয়েলারি শিল্পের এ আয়োজনে।

১৭ মার্চ থেকে ১৯ মার্চ- বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটিতে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে মেলা চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত।

বাজুস প্রেসিডেন্ট ও দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীর আশা করছেন, এই এক্সপো দেশীয় অলংকার শিল্পকে সমৃদ্ধ করার পাশাপাশি অভ্যন্তরীণ চাহিদা মিটিয়ে বাংলাদেশকে স্বর্ণ এবং স্বর্ণজাত শিল্প রপ্তানির ক্ষেত্রে একটি শক্ত অবস্থানে নিতে অবদান রাখবে।

যা আমাদের জিডিপির হারকে সন্তোষজনক পর্যায়ে উন্নীত করতে সক্ষম হবে।

এক্সপো উপলক্ষে বুধবার (৯ মার্চ) বিকেলে রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিংমলে বাজুস কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত তুলে ধরেন বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির কোষাধ্যক্ষ ও এক্সিবিশন ট্রেড অ্যান্ড ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান উত্তম বণিক।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার ১, ২ ও ৩ নম্বর হলে অনুষ্ঠেয় বাংলাদেশ জুয়েলারি এক্সপোতে দেশ-বিদেশের বহু ক্রেতা-বিক্রেতার শতাধিক স্টল অংশ নেবে। জুয়েলারি এক্সপোতে আগত ক্রেতা-দর্শনার্থীদের জন্য থাকবে বিশাল মূল্যছাড়সহ আকর্ষণীয় সব অফার।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাজুসের সহসভাপতি গুলজার আহমেদ, আনোয়ার হোসেন, ডা. দেওয়ান আমিনুল ইসলাম শাহীন, সহসম্পাদক নারায়ণ চন্দ্র দে, কার্যনির্বাহী সদস্য উত্তম ঘোষসহ কার্যনির্বাহী কমিটির নেতারা।

বাজুসের কোষাধ্যক্ষ ও এক্সিবিশন ট্রেড অ্যান্ড ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান উত্তম বণিক বলেন, প্রথমবারের মতো আয়োজিত বাংলাদেশ জুয়েলারি এক্সপো-২০২২ দেশের স্বর্ণ ব্যবসার নতুন দিগন্ত উন্মোচন করবে। খুলে যাবে রপ্তানির দুয়ার। বৈদেশিক মূদ্রা উপার্জনে রাখবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে উত্তম বণিক বলেন, দেশের প্রথম জুয়েলারি এক্সপোতে ভারত, দুবাই, কুয়েত, ইংল্যান্ডসহ অনেক দেশের দর্শনার্থীরা আসবেন।

বাজুসের সহসভাপতি গুলজার আহমেদ বলেন, এক্সপোর মাধ্যমে আমাদের রপ্তানির দ্বার উন্মোচিত হবে বলে আমরা আশা করছি। আমাদের প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীরের নেতৃত্ব জুয়েলারিখাতের সমস্যাগুলো সমাধান করে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

সহসভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেন, আমাদের দেশের কারিগরদের হাতে তৈরি গহনার চাহিদা রয়েছে বিশ্বব্যাপী। সারাবিশ্বে হাতে তৈরি গহনার কারিগরদের ৮০ শতাংশ বাংলাদেশি। সায়েম সোবহান আনভীর বাজুসের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার পর জুয়েলারি শিল্পে পরিবর্তন আসতে শুরু করেছে। আমরা আশাবাদী স্বর্ণ শিল্প আরও অনেক দূর এগিয়ে যাবে।

news24bd.tv তৌহিদ

এই রকম আরও টপিক