ইউক্রেন-রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে যে সিদ্ধান্ত এলো
ইউক্রেন-রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে যে সিদ্ধান্ত এলো

সংগৃহীত ছবি

ইউক্রেন-রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে যে সিদ্ধান্ত এলো

অনলাইন ডেস্ক

ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের ১৫তম দিনে গড়িয়েছে। বাড়ছে হামলায় হতাহত মানুষের সংখ্যা। এদিকে শান্তি চুক্তির জন্য তিন দফা বৈঠক হলেও এসব বৈঠকে দুই দেশের প্রতিনিধিদলের মধ্যে কোনো সমঝোতা হয়নি। হামলা বন্ধে আজ তুরস্কে বৈঠকে বসে দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

কিন্তু আগের তিনটি বৈঠকের মতোই পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের আজকের বৈঠকেও কোনো সুরাহা হয়নি। কোনো ধরনের অগ্রগতি ছাড়াই আলোচনা শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্র কুলেবা।

বৃহস্পতিবার তুরস্কের আনাতোলিয়ায় মুখোমুখি আলোচনায় বসেন ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্র কুলেবা এবং রাশিয়ান পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লেভরভ৷ যুদ্ধ শুরুর পর এটি দুই দেশের মন্ত্রী পর্যায়ের প্রথম বৈঠক ছিল এটি৷

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ইউক্রেনীয় মন্ত্রী বলেন, আমরা যুদ্ধবিরতির বিষয়ে কথা বলেছি, ২৪ ঘণ্টার যুদ্ধবিরতি। কিন্তু এতে কোনো অগ্রগতি মেলেনি। ’

দিমিত্র কুলেবা বলেন, ইউক্রেন রাশিয়ার দাবি মানার আগ পর্যন্ত দেশটি হামলা অব্যাহত রাখবে বলেই লেভরভ বার্তা দিয়েছেন তাকে৷

বৈঠক পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লেভরভ বলেন, আমরা দেখতে পাচ্ছি কিভাবে ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ আমাদের পশ্চিমা সহকর্মীরা ইউক্রেনে মারণাস্ত্র সরবরাহসহ তাদের ভয়াবহ কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে, যা সব ধরনের নীতি নৈতিকতার বিরোধী৷ 

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী  বলেন, আমরা কূটনৈতিক তৎপরতার জন্য প্রস্তুত। আমরা কূটনৈতিক সিদ্ধান্ত চাই। কিন্তু যতক্ষণ পর্যন্ত সমাধান না আসে, ততক্ষণ আমরা নিষ্ঠার সাথে লড়ে যাব। আমাদের ভূমি, আমাদের জনগণকে রক্ষায় নিজেদের উৎসর্গ করব।

সূত্র: এএফপি ও বিবিসি।

news24bd.tv/আলী   

;