খাবার আর পানির তীব্র সংকটে মারিওপোলবাসী, দেয়া হচ্ছে গণকবর

খাবার আর পানির তীব্র সংকটে মারিওপোলবাসী, দেয়া হচ্ছে গণকবর

মাসুদ রানা

টানা ১০ দিন রুশ বাহিনীর কাছে অবরুদ্ধ ইউক্রেনের মারিওপোল শহরের রাস্তায় রাস্তায় মিলছে লাশ। সমাহিত করার স্থান সংকুলান না হওয়ায়  দেয়া হচ্ছে গণকবর। শুধু মারিওপোলেই ১২ শোর বেশি বেসামরিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেছেন শহরটির মেয়র। সেইসাথে খাদ্য আর পানির তিব্র সংকটে মানবেতর দিন পার করছে মারিওপোলবাসী।

 

রুশ বোমা হামলায় ক্ষত বিক্ষত এসব মৃতদেহের শেষ ঠিকানা এখন গণকবর। রাশিয়ার হামলায় শহরে ঠিক কত মানুষ মারা গেছেন, তার সঠিক তথ্য না জানালেও রাস্তা থেকে এক হাজার ২০৭ জনের মরদেহ উদ্ধার করারা কথা জানিয়েছে মারিওপোলের মেয়র। স্থানীয় প্রশাসন এক একটি গণকবরে ৩৩টি পর্যন্ত মৃতদেহ দাফন করছেন, যাদের বেশিরভাগ পরিচয়হীন।

রাশিয়ার সামরিক অভিযানের ১৫ দিনে ইউক্রেনের বেশিরভাগ শহর ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে যার মাঝে এই মারিওপল অন্যতম। রুশ হামলার মুখে শহর ছেড়ে পালিয়েছে বেশিরভাগ বাসিন্দা। তবে অনবরত হামলার মুখে অনেকেই আটকা পড়েছে শহরটিতে। এরিমাঝে মারিওপোলে কয়েক দফায় যুদ্ধবিরতি দেয়া হলেও তা কার্যকর হয়নি বলে অভিযোগ করেছে কিয়েভ।  

এরই মাঝে ত্রিব্র খাদ্য আর পানি সংকটে পড়েছে মারিওপোলবাসী। এমনকি লোকজন খাবারের জন্য একে অন্যের ওপর আক্রমণের অভিযোগ করছেন বাসিন্দারা।  

আমি জানি না কে এই যুদ্ধ শুরু করেছে, আর এর জন্য কে দায়ী জানতেও চাইনা, শুধু বাঁচতে চাই। খাদ্য , পানি গ্যাস নেই, এখানে লুটপাট চলছে, এমনকি মানুষের মৃতদেহ বাড়িতেই পুতে ফেলা হচ্ছে ।

রেডক্রসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মারিওপোলের অবস্থা দিন দিন খারাপ হচ্ছে। খাদ্য আর পানি ফুরিয়ে এসেছে, দেখা দিয়েছে ওষুধ সংকট। দ্রুত শহরটি থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে না নিলে, মৃত্যু হতে পারে আরো বহু বেসামরিক নাগরিকের।   
news24bd.tv/আলী   

;