দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরা হলো না দুই বন্ধুর!
দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরা হলো না দুই বন্ধুর!

ইমরান হোসেন ও শাওন হোসেন

দাওয়াত খেয়ে বাড়ি ফেরা হলো না দুই বন্ধুর!

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি:

বন্ধুর বাড়ি থেকে দাওয়াত খেয়ে শাওন হোসেন (২১) ও ইমরান হোসেন (২২) নামের দুই যুবকের বাড়ি ফেরা হলো না। মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে গাছের সাথে ধাক্কা খেয়ে ঘটনাস্থলে তারা দুই জন নিহত হয়। এতে আসিব হোসেন (২০) নামের আরও এক যুবক গুরুত্বর আহত হয়। আহত আসিব হোসেনকে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

  

শুক্রবার রাত ১১টার দিকে উপজেলার খেদাপাড়া-মুক্তারপুর সড়কের বসন্তপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শাওন হোসেন উপজেলার কেছমত চাকলা গ্রামের এরশাদ আলীর ছেলে এবং ইমরান হোসেন একই গ্রামের মৃত কাশেম আলীর ছেলে। এবং আহত আসিব হোসেন উপজেলার ডুমুরখালি গ্রামের আব্দুল আলিমের ছেলে। হতাহত তিনজন একই মোটরসাইকেলে ছিল।


জানা যায়, তিন বন্ধু শাওন হোসেন, ইমরান হোসেন ও আসিব হোসেন শুক্রবার সন্ধ্যার পর মোটরসাইকেল যোগে খেদাপাড়া গ্রামের আনিছুর রহমানের বাড়িতে দাওয়াত খেতে যায়। খাওয়া দাওয়া শেষে রাত আনুমানিক ১১ টার দিকে বাড়ি ফেরার পথিমধ্যে মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রন হারিয়ে বসন্তপুর গ্রামের নন্দী বাবুর বাড়ি সংলগ্ন রাস্তার পাশের মেহগনি গাছের সাথে ধাক্কা খাই।

এতে ঘটনাস্থলেই শাওন ও ইমরান নিহত হয়। গুরুত্বর আহত অবস্থায় আসিবকে যশোর হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। কিন্তু রোগীর অবস্থা আশাংখ্যজনক হওয়ায় কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে ঢাকায় রেফার্ড করেন। আহত আসিবের চাচাতো ভাই শহিদুল ইসলাম বলেন, আসিবের অবস্থা ভালো নয়।  

নিহত শাওনের চাচা আরশাদ আলী জানান, তিন বন্ধু মটরসাইকেল যোগে খেদাপাড়ায় দাওয়াত খেতে গিয়েছিল। সেখান থেকে বাড়ি ফেরার পথে এ ঘটনা ঘটে।

থানার ওসি নুর-ই আলম সিদ্দিকী জানান, নিহতদের মরদেহ ও মোটরসাইকেলটি থানায় আনা হয়েছে।  

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন জানান, শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে কিসমত চাকলা মসজিদ প্রাঙ্গনে নামাজে জানাযা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

news24bd.tv/আলী