শাহ সুলতান মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির চেয়ারম্যান গ্রেফতার
শাহ সুলতান মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির চেয়ারম্যান গ্রেফতার

সংগৃহীত ছবি

শাহ সুলতান মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির চেয়ারম্যান গ্রেফতার

নাঈম আল জিকো

অধিক মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে গ্রাহকের প্রায় দুইশ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে প্রতারণার মূলহোতা ও শাহ সুলতান মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির চেয়ারম্যান শাহ আলমসহ ৫ জনকে নরসিংদী থেকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। সংস্থাটি জানিয়েছে, এ পর্যন্ত প্রায় ৬ হাজার গ্রাহকের কাছ থেকে প্রতারণা করে এই টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এদিকে র‍্যাব বলছে, ইসলামি শরিয়াহ মোতাবেক ব্যবসায়িক প্রকল্পের বিনিয়োগের প্রলোভন দেখাতো প্রতিষ্ঠানটি।

২০১০ সালে নরসিংদী সদর উপজেলার চিনিশপুর ইউনিয়নের ঘোড়াদিয়া এলাকার একটি মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় প্রধান কার্যালয় স্থাপন করে শাহ সুলতান মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড নামের প্রতিষ্ঠান।

সমবায় অধিদপ্তরের অনুমোদিত ও নিয়ন্ত্রিত দাবি করে প্রতিষ্ঠানটি ইসলামি শরিয়াহ মোতাবেক ব্যবসায়িক প্রকল্পের বিনিয়োগের প্রলোভন দেখাতো।

প্রতিষ্ঠানটি প্রথমে মুনাফা দিলেও, পরে একে একে শাহ সুলতান টেক্সটাইল মিল, শাহ সুলতান প্রোপার্টিজ ও মার্কেটসহ বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে নিজেদের লাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেখানোয় বাড়তে থাকে গ্রাহক সংখ্যা। আর গ্রাহক বাড়াতে ৩০০ এর বেশি এজেন্ট নিয়োগ দিয়েছিলেন প্রতিষ্ঠানটি বলে জানায় রব।  

প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যানসহ ৫ জনকে নরসিংদী থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। বলছে, বিশ্বাস অর্জনের জন্য প্রতিষ্ঠানটি কর্মী হিসেবে নিয়োগ দিত ইসলামি শিক্ষায় শিক্ষিত ও এলাকায় বিশ্বস্ত লোকজনদের। প্রতি মাসে মুনাফা পাওয়ায় অনেক প্রবাসী তাঁদের আয় করা টাকা, অনেকে জমি বিক্রির টাকা, এমনকি অন্যান্য ব্যাংকে রাখা টাকাও উত্তোলন করে বিনিয়োগ করেন এখানে।

করোনা পরিস্থিতির অজুহাতে সাময়িকভাবে বন্ধ থাকার ঘোষণার নোটিশ টাঙিয়ে উধাও হয়ে যায় সমিতির পরিচালনা পরিষদে থাকা লোকজন।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত