জোহর ও আসরে নবীজি (সা.) যে সুরা পড়তেন
জোহর ও আসরে নবীজি (সা.) যে সুরা পড়তেন

প্রতীকী ছবি

জোহর ও আসরে নবীজি (সা.) যে সুরা পড়তেন

অনলাইন ডেস্ক

কখনো কখনো রাসুল (সা.) জোহরের নামাজে সুরা লুকমান ও সুরা জারিয়াত পড়তেন। (নাসাঈ : ৯৭১; ইবনে মাজাহ : ৮৩০)

কখনো কখনো রাসুল (সা.) জোহরের নামাজে সুরা ইনশিকাক এবং এ ধরনের সুরা তিলাওয়াত করতেন। (সহিহ ইবনে খুজাইমা, হাদিস : ৫১১)

কখনো কখনো রাসুল (সা.) জোহর ও আসরের নামাজে সুরা বুরুজ ও সুরা তারিক এবং এ ধরনের সুরা পাঠ করতেন। (তিরমিজি, হাদিস : ৩০৭)।

কখনো কখনো রাসুল (সা.) জোহরের নামাজে সুরা ওয়াল লাইলি ইজা ইয়াগশা (সুরা আল-লাইল) পাঠ করতেন এবং আসরের নামাজেও অনুরূপ কোনো সুরা পাঠ করতেন। (মুসলিম, হাদিস : ৯১৬)

কখনো কখনো রাসুল (সা.) জোহরের নামাজে সুরা আলা (সাব্বি হিসমি রব্বিকাল আ’লা)। পাঠ করতেন। (মুসলিম : ৯১৭)

রাসুল (সা.) কর্তৃক জোহরের নামাজে ফজরের নামাজের মতো দীর্ঘ কিরাত পড়ার নজিরও আছে। আবু সাঈদ আল খুদরি (রা.) বলেন, আমরা জোহর ও আসরের সালাতে রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর কিয়ামের (দাঁড়ানোর) পরিমাণ নিরূপণ করার চেষ্টা করতাম। জোহরের প্রথম দুই রাকাতে তাঁর দাঁড়ানোর পরিমাণ ছিল সুরা আলিফ-লাম-মিম সাজদা পাঠ করার পরিমাণ সময়। তার পরবর্তী দুই রাকাত আমরা তাঁর কিয়ামের পরিমাণ নিরূপণ করেছি ওই সুরার অর্ধেক পাঠ করার পরিমাণ সময়। আমরা আসরের দুই রাকাতে তাঁর কিয়ামের পরিমাণ নিরূপণ করেছি জোহরের শেষের দুই রাকাত তাঁর কিয়ামের পরিমাণ সময়। আর আসরের শেষ দুই রাকাত তাঁর কিয়ামের পরিমাণ ছিল প্রথম দুই রাকাতের অর্ধেক পরিমাণ সময়। (মুসলিম, হাদিস : ৯০১)

মহান আল্লাহ তা'আলা সকলকে আমল করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

news24bd.tv রিমু