ঝিনুকের ভেতর খোদাই করা আল্লাহর নাম!
ঝিনুকের ভেতর খোদাই করা আল্লাহর নাম!

সংগৃহীত ছবি

ঝিনুকের ভেতর খোদাই করা আল্লাহর নাম!

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর প্রতিনিধি

কখনো পাথরে, কখনো গাছের পাতায়, কখনো মাংসে আবার কখনো মাছের গায়ে আরবি বর্ণে আল্লাহ শব্দটি লেখা রয়েছে এমন খবর মাঝে মধ্যেই শোনা গেছে। এবার নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার মাধনগর ইউনিয়নের ভট্টপাড়া গ্রামের এক ফসলী মাঠে পাওয়া এক ঝিনুকের ভেতর খোদাই করা আল্লাহসাদৃশ্য লেখা নিয়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ঝিনুকের ভেতরে আরবীতে লেখা আছে ‌'ইয়া আল্লাহ'। বিষয়টি জানাজানি হলে ঝিনুকটি একনজর দেখতে উপজেলার ভট্টপাড়া গ্রামে আজাদুল শেখের বাড়িতে উৎসুক জনতার ভিড় জমে গেছে।

 

বর্তমানে ঝিনুকটি রয়েছে ওই গ্রামের আজাদুল শেখের বাড়িতে। স্থানীয়দের দাবি, প্রাকৃতিকভাবেই এই ঝিনুকে খোদাই রয়েছে আল্লাহর নাম। ঝিনুকে 'ইয়া আল্লাহ' লেখা নিয়ে অবশ্য সন্দেহও করছেন অনেকে।  

মাধনগর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল জব্বার এবং স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল হান্নান বিষয়টির সত্যাতা নিশ্চিত করেছেন। ইউপি সদস্য আব্দুল হান্নান জানান, প্রথমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি নজরে আসে তার। যেহেতু এলাকাটি তার ওয়ার্ডে, তাই সত্যতা জানতে খোঁজ নেন। এসময় স্থানীয়রা জানান, তারা আজাদুলের বাড়িতে গিয়ে ওই ঝিনুকটি দেখেছেন।  

আজাদুল শেখ জানান, গত রবিবার তার স্ত্রী  আঙ্গুর বিবি বাড়ির পাশের ফসলী মাঠে থেকে ঘাস নিয়ে বাড়ি ফিরছিল। পথে ওই ঝিনুকটি দেখতে পান। ঝিনুকটি দিয়ে রান্নার পাতিলের ময়লা পরিস্কার করবেন বলে তা কুড়িয়ে নেন।  কিন্তু বাড়ী ফিরে ঝিনুকটির দুই কপাট আলাদা করতেই দেখেন, আরবীতে লেখা ‌'ইয়া আল্লাহ'! পরে ঝিনুকটি পরিস্কার করে ধোয়ার পর লেখাটি আরো স্পষ্ট হয়ে ওঠে। প্রতিবেশীদের দেখালে তারাও আশ্চর্য হন।

বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকার উৎসুক জনতা ভিড় করতে থাকে ওই লেখা এক নজর দেখার জন্য। এসময় ওই ঝিনুকে 'ইয়া আল্লাহ' লেখা দেখে অনেককে সুবাহানআল্লাহ, আলহামদুলিল্লাহ বলে জিকির করতে দেখা যায়। অলেীকিক এই ঝিনুকটি বাড়িতেই সংরক্ষণ করবেন বলে জানান তিনি ।

জানতে চাইলে নলডাঙ্গা থানা জামে মসজিদের ইমাম আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, ’এটা মহান আল্লাহ তায়ালার কুদরত। তিনি সর্ব অবস্থায় বিরাজমান। তিনি যে অসীম শক্তিধর তার প্রমাণ বিভিন্ন সময়ে দৃশ্যমান হয়। ঝিনুকের মধ্যে আল্লাহ নজির দেখিয়েছেন। মানুষকে বোঝাতে চেয়েছেন তিনি সর্ব অবস্থায় বিরাজমান।

news24bd.tv/এআর-কাবুল