তরুণীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে গ্রাম পুলিশসহ গ্রেপ্তার ৪
তরুণীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে গ্রাম পুলিশসহ গ্রেপ্তার ৪

প্রতীকী ছবি

তরুণীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে গ্রাম পুলিশসহ গ্রেপ্তার ৪

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: 

লক্ষ্মীপুরে কর্মস্থল থেকে ফেরার পথে এক তরুণীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) দুপুরে গ্রেপ্তারকৃতদের কারাগারে প্রেরণ করা হয়। এর আগে বুধবার রাত ৮ টার দিকে শহরের উত্তর তেমহুনী থেকে কাঞ্চনী বাজার সড়কে এ ঘটনা ঘটে। পরে তরুণীর মায়ের অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানায় মামলা গ্রহণ করে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, সদর উপজেলার চররুহিতা ইউনিয়নের বাসিন্দা মো. রিপন, মো. নিজাম উদ্দিন, মো. খোরশেদ আলম ও স্থানীয় গ্রাম-পুলিশ দুলাল হোসেন।

জানা যায়, লক্ষ্মীপুর নিউ মডার্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চাকুরি করেন ভুক্তভোগী ওই তরুণী। প্রতিদিনের মতো ডিউটি শেষে বুধবার (২৩ মার্চ) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে শহরের উত্তর তেহমুনী এলাকায় একটি সিএনজি অটোরিকশায় উঠে তার নিজ বাড়ি কাঞ্চনী বাজার যাচ্ছিলেন সে। এর আগেই যাত্রী বেসে সিনএজিতে বসে ছিলেন অভিযুক্ত রিপন ও নিজাম উদ্দিন।  

সিএনজি অটোরিকশাটি মজু চৌধুরী হাট রোডের নতুন মহিলা কলেজ এলাকায় পৌঁছলে রিপন ও নিজাম জোরপূর্বক তরুণীকে একা-পেয়ে শ্লীলতাহানি করে। এ সময় তার শোর চিৎকারে একপর্যায়ে তাকে সিএনজি থেকে নামিয়ে দেয় তারা। পরে তরুণী একটি অটোরিকশা নিয়ে জনতা বাজার লাদেনের মোদি দোকানের সামনে পৌঁছলে অভিযুক্তরা তাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে মারধর ও শ্লীলতাহানি করে।  

এরইমধ্যে গ্রাম-পুলিশ দুলাল এসে তরুণীকে উদ্ধার না করে একই অপরাধে জড়িয়ে পড়ে। রাতে অভিযুক্তদের নাম উল্লেখ করে ভুক্তভোগী তরুণীর মা লিলি বেগম 'নারী ও শিশু নির্যাতন' দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ চররুহিতা ইউনিয়নের বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে।  

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসিম উদ্দিন নিউজ টোয়েন্টিফোরকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।  

news24bd.tv/ কামরুল