'ইউক্রেন সামরিক অভিযানে মস্কোর প্রধান প্রধান লক্ষ্য অর্জিত হয়েছে'
'ইউক্রেন সামরিক অভিযানে মস্কোর প্রধান প্রধান লক্ষ্য অর্জিত হয়েছে'

রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী (ফাইল ছবি)

'ইউক্রেন সামরিক অভিযানে মস্কোর প্রধান প্রধান লক্ষ্য অর্জিত হয়েছে'

অনলাইন ডেস্ক

রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেছেন, ইউক্রেনে রাশিয়ার ‘সামরিক অভিযানে’ মস্কোর প্রধান প্রধান লক্ষ্য অর্জিত হয়েছে। মঙ্গলবার একটি টেলিকনফারেন্সে প্রায় পাঁচ সপ্তাহ ধরে চলা তাদের ‘সামরিক অভিযানের’ ব্যাপারে কথা বলেন তিনি। রুশ মন্ত্রী বলেন, এই অভিযানের প্রথম পর্যায়ে আমাদের প্রধান প্রধান যেসব লক্ষ্য ছিল, সেগুলো আমরা অর্জন করেছি। খবর বিবিসি ও টাসের

রাশিয়ার যদি মূল লক্ষ্যগুলো অর্জিত হয়েই থাকে, তাহলে এতদিন পশ্চিমা বিশ্লেষকরা যা বলে এসেছেন, তার সঙ্গে শোইগুর এই বক্তব্যের মিল নেই।

পশ্চিমা বিশ্লেষকরা মনে করেন, ইউক্রেনের বিভিন্ন অঞ্চলে প্রতিরোধের মুখে পড়ার পর রুশ বাহিনী পিছু হঠতে শুরু করেছে এবং ক্রেমলিন তাদের লক্ষ্যমাত্রা কমিয়ে এনেছে।

যদিও শোইগু বলছেন, ইউক্রেনের সামরিক সক্ষমতার উল্লেখযোগ্য ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া রাশিয়ার প্রধান লক্ষ্য রুশ-ভাষীদের অঞ্চল দনবাসকে তার ভাষায় ‘মুক্ত করা’। ইউক্রেনকে অস্ত্র সরবরাহ করায় কিয়েভের পশ্চিমা মিত্রদেরও সমালোচনা করেন রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী। সের্গেই শোইগু চলতি মাসের শুরুর দিকে দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে নিখোঁজ ছিলেন এবং গত সপ্তাহে তাকে আবার জনসমক্ষে আসতে দেখা যায়। তাকে নিয়ে অনেক জল্পনা-কল্পনা চলছিল।

ইউক্রেনের বেশ কয়েকটি শহরে রুশ হামলা অব্যাহত রয়েছে। দক্ষিণের শহর মিকোলাইভে আঞ্চলিক সরকারের অফিসে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় অন্তত সাতজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ৩০ জন। ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় লুহান্সক এবং দনিয়েৎস্ক অঞ্চলেও যুদ্ধ চলছে। উত্তরের চেরনিহিভ শহরেও রুশ বাহিনীর গোলাবর্ষণ অব্যাহত রয়েছে। খারকিভ শহরেও রাশিয়ার গোলাবর্ষণ অব্যাহত।

news24bd.tv/ কামরুল